ভারতে সাংবাদিক গৌরি ল্যাঙ্কেশ হত্যার বিচার চেয়ে বিক্ষোভ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার
ভারতের ব্যাঙ্গালুরে সাংবাদিক গৌরি ল্যাঙ্কেশ হত্যার বিচার চেয়ে সাংবাদিক, লেখক ও শিক্ষাবিদসহ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ বিক্ষোভ করতে রাস্তায় নেমেছে। বিক্ষোভকারীদের অনেকের হাতে ছিলো ‘আই এম গৌরি’ লেখা প্ল্যাকার্ড। বাকিরা মত প্রকাশের স্বাধীনতা স¤পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ কবিতা আবৃত্তি করেছেন। পুলিশ গৌরির হত্যাকা- নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে তবে এখনো পর্যন্ত কাওকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। এ খবর দিয়েছে বিবিসি। খবরে বলা হয়, গৌরি ল্যাঙ্কেশকে ৫ই সেপ্টেম্বর তার বাড়ির সামনে গুলি করে হত্যা করা হয়।
গত কয়েক বছরে ভারতে খুন হওয়া প্রভাবশালী সাংবাদিকদের একজন তিনি। তার মৃত্যুর পর ভারতজুড়ে বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ করা হয় তবে তার নিজ শহরে এখন পর্যন্ত তেমন কোন প্রতিবাদের স্বর জাগেনি। গৌরি ল্যাঙ্কেশ তার বামপন্থী দৃষ্টিভঙ্গির জন্যে বেশ পরিচিত ছিলেন। সাংবাদিক হিসেবে তিনি ভারতের রাজনীতিতে হিন্দু মৌলবাদের প্রভাবের কড়া সমালোচনা করেন ও এই ব্যবস্থার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদও করেন। এছড়া তিনি নকশাল ও মাওবাদী বিদ্রোহীদের পক্ষেও কথা বলেন। উল্লখ্য, এই উভয় দলই সরকারের বিরুদ্ধে সহিংস বিদ্রোহ চালিয়ে যাচ্ছে।
২১ টি নাগরিক সমাজ সংস্থা ব্যাঙ্গালুরের সমাবেশটি আয়োজন করেছে। সমাবেশটি শহরের রেল স্টেশন থেকে শুরু হয় ও পরে বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় নামেন। মিছিলকারীরা প্রতিবাদী গান গেয়ে ও ‘লং লিভ গৌরি ল্যাঙ্কেশ’ স্লোগান দিয়ে মিছিল করেন। মিছিলকারীদের অনেকে কালো ‘আই এম গৌরি’ লেখা ‘হ্যাডবেন্ড’ পরে মিছিল করেন। ঠিক কি কারণে গৌরিকে হত্যা করে হয়েছে তা এখনও অজানা। মিছিলে প্রধান বক্তাদের একজন ছিলেন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ও কমিউনিস্ট পার্টির নেতা সিতারাম ইয়েচুরি। তিনি বলেন, ‘যখন আমি বলি যে আমি গৌরি, তার মানে হচ্ছে আমাদেরকে চুপ করানো যাবেনা। একটি সোশ্যালিস্ট ও ধর্ম নিরপেক্ষ ভারতের ধারণা এখনো বেঁচে আছে।’ তথ্যচিত্রকার রাকেশ শর্মা বলেন, ‘আমরা তোমাদের সামনে আসবো, আমরা তোমাদের জন্যে অপেক্ষা করবোনা।’ তোমরা আর কাকে কাকে টার্গেট করবে? বিক্ষোভে অংশ নেওয়া এক শিক্ষার্থী পিয়ার্ল গ্যাব্রিয়েল বলেন, ‘মত প্রকাশের স্বাধীনতা আর ভাল ফল বয়ে আনে না। আপনি যদি স্বাধীনভাবে আপনার দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ করেন, আপনাকে খুন করা হতে পারে।’ দ্য কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট নামে একটি বেসরকারি সংস্থা ভারতকে সাংবাদিকদের রক্ষা করার রেকর্ড হিসেবে তৈরি এক তালিকায় নিচের  দিকে স্থান দিয়েছে। তাদের অনুসাওন্ধানে দেখা গেছে, ১৯৯২ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ভারতে অন্তত ২৭জন সাংবাদিককে তাদের কাজের জন্যে খুন করা হয়েছে।


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণের দাবি

এখনও আসছে রোহিঙ্গারা, সমঝোতা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

৯০ টাকা ছাড়ালো পিয়াজের কেজি

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি মামুলি ব্যাপার

‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’

চিরঘুমে লোকসংগীতের মহীরুহ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্যার ক্ষতি পোষাতে দরকার ১০০ কোটি টাকা

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ

দুই দলেই হেভিওয়েট প্রার্থী

দরিদ্রদের জন্য বিচারের বাণী নীরবে কাঁদে

৭ই মার্চ ভাষণের স্বীকৃতিতে দেশব্যাপী শোভাযাত্রা আজ

সম্মতিপত্র প্রকাশের দাবি বিএনপির

ঘরে ঘুরে দাঁড়ালো চিটাগং

মিশরে মসজিদে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ২৩০

‘শেষ মুহূর্তে হলে সরকার সমঝোতায় আসবে’

রবি-সোমবার সব সরকারি কলেজে কর্মবিরতি