আমরা কারো সমালোচনা করতে পারি, তাকে কুকথা বলতে পারি না

ফেসবুক ডায়েরি

আবদুন নূর তুষার | ৫ জুলাই ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪০
মতপ্রকাশের স্বাধীনতা থাকা উচিত। যেকোনো ধরনের মতামতের প্রতি আমাদের  ধৈর্য ধরে শোনার ও সহ্য করার শক্তিও থাকা উচিত। জ্ঞানী মানুষদের মতামতের ভিন্নতা সমাজকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যায়। তাদের বিরোধী লোক ও পক্ষের লোক, দুই দিকেই অনেক পাওয়া যাবে। তারা তাদের নিজেদের পড়াশোনা ও উপলব্ধি থেকে নিজেদের অবস্থানও বদলান। এটাও কোনো সমস্যা না। এরকম হলেই বা ক্ষতি কি? সারাজীবন নামাজ-রোজা না করা মানুষদের হজ করার দৃশ্য দেখে আমরা অভ্যস্ত। এটা হলে আমরা অনেকেই খুশি হই, উল্টোটা হলে সেটাকে সমালোচনা করি। মোট কথা নিজের মতের সঙ্গে না মিললেই আমরা রেগে যাই। রেগে গেলে ভদ্র ভাষায় কথা বলা যায়। অশ্লীল কুকথা বলার কোনো দরকার নাই। সমালোচনা কাজের বিষয়ে হতে পারে, ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে হতে পারে না। সভ্য সমাজে সেটা করা হয় না। লুঙ্গি আমাদের গণমানুষের পোশাক। এটা দেশের অধিকাংশ পুরুষের ২৪ ঘণ্টার পোশাক। তারা এটা পরে ক্ষেতে-খামারে কাজ করেন। এটা নিয়ে তারা লজ্জাবোধ করেন না। লুঙ্গি নিয়ে রসিকতা করা আর নিজের দেশের সকলের পোশাক নিয়ে রসিকতা করা একই কথা। এটা একধরনের হীনমন্যতাও বটে। গতবছর রাণী এলিজাবেথের কাছ থেকে পুরস্কার নিতে বাংলাদেশের তরুণ ওসামা নূর পাঞ্জাবি ও লুঙ্গি পরে গিয়েছিল। এটা সকলেই প্রশংসা করেছেন। একজন মানুষ লুঙ্গি পরেন, এটা নিয়ে রসিকতা করার কোনো কারণ নেই। একসময় মহাত্মা গান্ধীকে বৃটিশরা নেকেড পলিটিশিয়ান বলে অপমান করার চেষ্টা করেছে। লুঙ্গি নিয়ে পচা কথা বলা সেইরকম ঔপনিবেশিক মানসিকতার ফসল। আমরা কারো সমালোচনা করতে পারি, তাকে কুকথা বলতে পারি না।
বঙ্গবন্ধু তার ভাষণে ভুট্টোকেও, ভুট্টো সাহেব বলতেন। কারণ জাতির জনক ছিলেন আপাদমস্তক একজন সাদা মনের মানুষ।
 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Masud Alam

২০১৭-০৭-০৪ ২১:৩৭:১৫

bastob khota

আপনার মতামত দিন