‘গাড়ি ২৯ লাখ, চালক ১৯ লাখ’

অন্য গণমাধ্যমের খবর

অনলাইন ডেস্ক | ৬ মে ২০১৭, শনিবার
‘গাড়ি ২৯ লাখ চালক ১৯ লাখ’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দৈনিক সমকাল। প্রতিবেদনে বলা হয়, নিয়ন্ত্রক সংস্থা সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) তথ্যানুযায়ী, সারাদেশে নিবন্ধিত মোটরযানের সংখ্যা ২৯ লাখ ৮৪ হাজার ২১৩। লাইসেন্সপ্রাপ্ত চালকের সংখ্যা ১৯ লাখ ৫১ হাজার ২৮০। সরকারি তথ্যানুযায়ী, গাড়ির তুলনায় চালকের ঘাটতি ১০ লাখ ৩২ হাজার ৯৩৩ জন। এ বিপুল সংখ্যক যানবাহন চালায় কারা? এ প্রশ্নের উত্তর নেই। পরিবহন খাত সংশ্লিষ্টরা জানান, ভুয়া লাইসেন্সধারী ও লাইসেন্সবিহীন চালকরা চালাচ্ছে ১০ লাখ ৩২ হাজার ৯৩৩টি নিবন্ধিত যানবাহন।

খাদ্যের মজুদ নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করেছে দৈনিক যুগান্তর।
‘তলানিতে খাদ্য মজুদ!’ শিরোনামের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, সরকারি গুদামে এ মুহূর্তে আপৎকালীন খাদ্য মজুদ প্রায় তলানিতে ঠেকেছে। গত বছরের ৩০ এপ্রিল সরকারি গুদামে চাল-গমের মজুদ ছিল ১০ লাখ ২২ হাজার ৪০ টন। চলতি বছর একই দিন এ মজুদ নেমে চার লাখ ৭৭ হাজার ৯০ টনে এসেছে। যদিও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঝুঁকির বিশ্ব তালিকায় প্রথম সারিতে থাকা বাংলাদেশে কমপক্ষে ১০ লাখ টন খাদ্য মজুদ রাখা খুবই জরুরি বলে মন্তব্য বিশেষজ্ঞদের। আর সেই মোতাবেক বিগত বছরগুলোতে মজুদের পরিমাণ ছিল কম-বেশি ১০ লাখ টন।

হাওরে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন করেছে দৈনিক প্রথম আলো। ‘ঠিকাদারেরা প্রভাবশালী, বাঁধ নির্মাণে গাফিলতি’ শিরোনামের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সুনামগঞ্জে হাওরের ফসলহানির পর যে ঠিকাদারের নামটি বেশি আলোচিত হচ্ছে, তা হলো খন্দকার শাহীন আহমদ। ফরিদপুর জেলার গোয়ালচামট এলাকার বাসিন্দা তিনি। এই ঠিকাদার সুনামগঞ্জের আটটি হাওরের নয়টি ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণের কাজ পেয়েছিলেন। তাঁর জন্য বরাদ্দ ছিল প্রায় নয় কোটি টাকা। কিন্তু তিনি পাঁচটি বাঁধের কোনো কাজই করেননি। অন্য চারটি বাঁধের মধ্যে দুটির কাজ হয়েছে ২০ শতাংশ, অপর দুটির ৪০ শতাংশ। সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বাঁধ নির্মাণসংক্রান্ত সর্বশেষ অগ্রগতি প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নবীনগরে আওয়ামী লীগ নেত্রী খুন

রোহিঙ্গাদের সঙ্গে দেখা হবে পোপের

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তনে বিশ্বজনমত গঠিত হয়েছে

৬৯ মাসে তদন্ত প্রতিবেদন পেছালো ৫২ বার

মসনদে বসছেন ‘কুমির মানব’

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সমঝোতার কাছাকাছি বাংলাদেশ-মিয়ানমার

তনুর পরিবারের সদস্যদের ঢাকায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ

স্বপ্ন দেখাচ্ছে সৌর বিদ্যুৎ

আসন ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ, ফিরে পেতে মরিয়া বিএনপি

মেয়র পদে ১৩ জনের মনোনয়নপত্র জমা

জিদান খুনের রোমহর্ষক বর্ণনা আবু বকরের

অসহনীয় শব্দ দূষণে বেহাল নগরবাসী

সব স্কুলে ছাত্রলীগের কমিটি দেয়ার নির্দেশ

একতরফা নির্বাচন কোন নির্বাচনী প্রক্রিয়া নয়

‘অনুমোদনহীন বারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

কি পেলাম কি পেলাম না সেই হিসাব মেলাতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী