হোয়াইট হাউজের বাইরে গুলি, ট্রাম্পকে দ্রুত সরিয়ে নেয়া হলো

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ১১ আগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:১১

চারদিক থেকে সুরক্ষিত হোয়াইট হাউজের পাশেই গুলি। সচেতন হয়ে উঠলেন নিরাপত্তাকর্মীরা। সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তার সব শাখা সতর্ক। বাইরে তখন এক আতঙ্ক। এ সময়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করছিলেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। আকস্মিক মঞ্চে উঠে এলেন সিক্রেট সার্ভিসের একজন এজেন্ট। ট্রাম্পের কথার মাঝে ছেদ ঘটিয়ে তার কানে কানে কিছু একটা বললেন। ট্রাম্প জবাবে বললেন- ‘এক্সকিউজ মি?’
‘এখান থেকে বের হয়ে আসুন’- বললেন সিক্রেট সার্ভিসের ওই এজেন্ট।

ট্রাম্প বললেন- ওহ্!
সঙ্গে সঙ্গে তাকে মঞ্চ থেকে তাকে নামিয়ে নেয়া হলো। উপস্থিত সাংবাদিকরা তখন কিংকর্তব্যবিমূঢ়। কেউ কিছু বুঝে উঠতে পারলেন না। এমনতো কখনো হয়নি! ট্রাম্প সংবাদ সম্মেলন ত্যাগ করেছেন এর আগে, তবে তার পিছনে নানা কারণ ছিল। কিন্তু সোমবার কোনো সাংবাদিকদের সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো উত্তেজনাকর অবস্থার সৃষ্টি হয়নি। তাহলে কেন তিনি মঞ্চ থেকে চলে গেলেন? কেন তাকে সিক্রেট সার্ভিসের লোকজন এসে নামিয়ে নিয়ে গেল? কয়েক মিনিট পরে ফিরে এলেন ট্রাম্প নিজে। তিনিই জানালেন গুলির ঘটনা। বললেন, হোয়াইট হাউজের বাইরে গুলি হয়েছে। দৃশ্যত তা খুব ভালভাবে নিয়ন্ত্রণে নেয়া হয়েছে। সব সময় দ্রুততার সঙ্গে এবং অত্যন্ত কার্যকরভাবে কাজ করে সিক্রেট সার্ভিস। এ জন্য আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।
ওদিকে সোমবার রাতে সিক্রেট সার্ভিস এক বিবৃতিতে বলেছে, হোয়াইট হাউজের কাছে ১৭তম স্ট্রিট নর্থওয়েস্ট এবং পেনসিলভ্যানিয়া এভিনিউ নর্থওয়েস্ট-এর কাছে সিক্রেট সার্ভিসের একজন কর্মকর্তার দিকে অগ্রসর হয় ৫১ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। ঘটনার সূত্রপাত সেখানেই। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ওই সন্দেহজনক ব্যক্তি সিক্রেট সার্ভিসের ওই কর্মকর্তাকে বলে, তার কাছে অস্ত্র আছে। এর পরই সে ওই কর্মকর্তার দিকে আগ্রাসীভাবে দৌড়াতে থাকে। এক পর্যায়ে সে তার পোশাকের ভিতর থেকে অস্ত্র বের করে। সঙ্গে সঙ্গে গুলি করার অবস্থান নেয়।
৯ মিনিট পরে ব্রিফিং রুমে ফিরে এলেন ট্রাম্প। বললেন, তাকে মঞ্চ থেকে নামিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ওভাল অফিসে। তার ভাষায়, সিক্রেট সার্ভিসের এমন ভূমিকায় আমি খুব নিরাপদ বোধ করি। তারা চমৎকার মানুষ। তারা সেরাদের সেরা। তারা উচ্চ প্রশিক্ষিত। বাইরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে, এটা নিশ্চিত করতে তারা আমাকে অল্প সময়ের জন্য এখান থেকে নামিয়ে নিয়েছিল।
তিনি আরো বলেন, তিনি মনে করেন ইউএস সিক্রেট সার্ভিস (ইউএসএসএস) একজন সন্দেহভাজনকে গুলি করেছে। তার কাছে অস্ত্র ছিল। এ ঘটনার পর একজনকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। ট্রাম্প স্বীকার করেন এটা ছিল অস্বাভাবিক এক পরিস্থিতি। ওদিকে ইউএসএসএস টুইটে বলেছে, ১৭তম স্ট্রিট এবং পেনসিলভ্যানিয়া এভিউতে একজন অফিসার গোলাগুলিতে জড়িত হয়েছেন। পরে তারা আরো জানায় একজন সন্দেহভাজন ও ইউএসএসএসের একজন কর্মকর্তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

হিন্দুস্তান টাইমসের রিপোর্ট

‘বাংলাদেশ ও মিয়ানমারে একসঙ্গে কাজ করতে চায় ভারত-জাপান’

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

পদত্যাগ করলেন আমাল ক্লুনি

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ইউরোপে সংক্রমণ বাড়ছে

সোমবার থেকে মাদ্রিদে লকডাউন

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

হারেৎসের রিপোর্ট

ইসরাইলের সঙ্গে কুয়েতও কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করবে!

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত