বরগুনায় শ্বশুরের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় শিকলবন্দী জামাতা

বরগুনা প্রতিনিধি

বাংলারজমিন ৩ আগস্ট ২০২০, সোমবার

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় শ্বশুরের কাছে পাওনা টাকা চাইতে এসে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন জামাই শফিকুল ইসলাম। তাকে শারীরিক নির্যাতন করে ১৬ দিন শিকলবন্দী করে রেখেছেন শ্বশুর বাড়ির লোকজন।
পাথরঘাটা পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন আবদুল হক মাস্টারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত শফিকুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার ১০ নং নলটোনা ইউনিয়নের শিয়ালিয়া গ্রামের আ. ছত্তার ফকিরের ছেলে।
পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবিরের কাছে শিকলবন্দী অবস্থায় গিয়ে শফিকুল ইসলাম তার শ্বশুর আবদুল হক মাস্টারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সুষ্ঠু বিচারের দাবি করেছেন। পরে ইউএনওর হস্তক্ষেপে তিনি শিকলমুক্ত হন।
শফিকুল ইসলাম জানান, তিনি ঢাকা তিতুমীর কলেজ থেকে ক্যামেষ্ট্রিতে মাস্টার্স পাস করে টেক্সটাইলের ওপর পিএইচডি করেন। লেখাপড়া শেষ করে বাংলাদেশ টেক্সফাইট বাইংহাউজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান হিসাবে ব্যবসা শুরু করেন। বিয়ের পর তার স্ত্রী জেসমিন আক্তারকে তিনি ওই কোম্পানির পরিচালক পদে বসান। এরপর ব্যবসা থেকে জেসমিন আক্তার তার বাবা আবদুল হক মাস্টারকে বিভিন্ন সময় বাড়ি নির্মাণ, ব্যবসার কাজে ও দুই ভাইকে বিদেশ পাঠানোসহ বিভিন্ন কারণে প্রায় এক কোটি ৬০ লাখ টাকা ধার দিয়েছেন।
করোনা ভাইরাসে দেশ অচল হয়ে যাওয়ায় শফিকুলের ব্যবসায় ধস নামে। এসময় শ্বশুরকে টাকা ধার দেয়া নিয়ে স্বামী/ স্ত্রীর মাঝে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়।
স্বামীর সাথে রাগ করে স্ত্রী জেসমিন আক্তার ব্যবসার সকল টাকা/পয়সা নিয়ে তার বাবার বাড়ি চলে আসে।
পরে গত ১৪ জুলাই শফিকুল পাথরঘাটায় তার শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রী ও সন্তানদের নিতে আসলে ধারের টাকা নিয়ে শ্বশুরের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এসময় শফিকুল আইনের আশ্রয় নেয়ার কথা জানালে, শ্বশুর আবদুল হক, শ্যালক রুমান হোসেন ও স্ত্রী জেসমিন আক্তার শফিকুলকে মারধর করে ১৬ দিন ধরে শিকল দিয়ে ঘরে বেঁধে রাখে।
শফিকুল জানান, শনিবার শ্বশুর বাড়ির লোকজন কোরবানির পশু জবাইয়ে ব্যস্ত থাকায় আমি শিকলসহ ঘর থেকে বের হয়ে দৌড় দিয়ে ইউএনওর বাসায় গিয়ে তার কাছে বিষয়টি খুলে বলেছি। ইউএনও বিষয়টি ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবু বকর সিদ্দিক মিল্লাতকে জানান। কাউন্সিলর এসে আমার পায়ে লাগানো শিকল খুলে দিয়েছেন।
 এ ব্যাপারে শফিকুল ইসলামের শ্বশুর আবদুল হক মাস্টারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার জামাই শফিকুল আমার মেয়েকে নির্যাতন করেছে। তিনি অসুস্থ এ কারণে তাকে শিকল পড়ানো হয়েছে। তাকে কোন নির্যাতন করা হয়নি। জামাই কিছু টাকা পাবে তা পর্যায়ক্রমে দেয়া হবে।
পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির জানান, তিনি ঈদের দিন দুপুরে তার বাসায় মেহমান নিয়ে খাবার খাচ্ছিলেন, এমন সময় শিকল পড়া অবস্থায় এক লোক এসে তার কাছে নির্যাতনের মৌখিক নালিশ জানিয়ে গেছেন। পরে বিকেল ৫টার দিকে খবর নিয়ে জানা যায়, তার (শফিকুলের) পায়ের শিকল খুলে দেয়া হয়েছে। শফিকুল আইনের আশ্রয় নিলে তাকে সহযোগিতা করা হবে।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

তালতলীতে ছাত্রদলের ১১ নেতার পদত্যাগ

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিপীড়িত ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের অবমূল্যায়ন করে কালো টাকায় মাদক ও হত্যা মামলার আসামিদের উপজেলা ও ...

পুঠিয়ায় ট্রাক চালককে পিটিয়ে হত্যা

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ছাগলের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ট্রাক চালককে পিটিয়ে হত্যা করেছে এলাকাবাসী। ...

মধুপুরে বিদ্যুত স্পৃষ্ঠ হয়ে যুবকের মৃত্যু

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

টাঙ্গাইলের মধুপুরে এলটি (২২০ ভোল্ট) তারে বিদ্যুত স্পৃষ্ঠ হয়ে ফারুক হোসেন(২৭) নামের এক যুবকের মর্মান্তিক ...

ডিমলায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত নারীর মৃত্যু

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

নীলফামারীর ডিমলায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত নুর জাহান নামে এক নারীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্য হয়েছে। শুক্রবার ...

ফুলবাড়ীতে গাঁজাসহ ট্রাক চালক আটক

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ভারতীয় ৬ কেজি গাঁজা ও একটি ট্রাকসহ চালককে আটক ...

নলছিটিতে ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

যোগ্যদের বাদ দিয়ে টাকার বিনিময়ে বিবাহিত, ছাত্রত্ব নেই, ছাত্রলীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত ও ঢাকায় বাস করেন ...

তাড়াশে প্রতারকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এক প্রতারকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন হয়েছে। শনিবার সকালে তাড়াশ প্রেসক্লাবের সামনে প্রতারকের দ্বারা প্রতারিত ...

ময়মনসিংহে করোনা আক্রান্ত হয়ে স্কুলশিক্ষকের মৃত্যু

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ময়মনসিংহে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসিম উদ্দিন (৬৫) নামে এক স্কুলশিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার  ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত