কামারদের দুর্দিন

তামান্না মোমিন খান

শেষের পাতা ৩১ জুলাই ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:২১

করোনার কারণে চার মাস ধরে দুর্দিন চলছে কামারদের। তারপরও তারা  আশায় ছিল কোরবানি ঈদে কিছুটা হলেও দুর্দশা কাটবে তাদের। সে আশায়ও গুড়েবালি। দরজায় ঈদ কড়া নাড়ছে তারপরও বেচাকেনা নেই দা, বঁটি, ছুরির। এমন কি দা, বঁটি, ছুরি ধার করাতেও আসছে না মানুষ। বছরের একটা সময় শুধু কোরবানি ঈদে সবচেয়ে বেশি বেচাকেনা চলে কামারের দোকানে। এ সময়টির অপেক্ষায় থাকে তারা। এ বছর পুরোটাই ভিন্ন প্রেক্ষাপট।
কাওরান বাজারে কামারের দোকানে গিয়ে
 দেখা গেছে নেই কোনো দা-বঁটি  বানানোর শব্দ। নেই কোনো দা, বঁটি শান দেয়ার আওয়াজ। দোকানি বসে আছে। কেমন চলছে বেচাকেনা জানতে চাইলে কামার রাজু বলেন- ‘করোনা আমাদের শেষ কইরা দিছে। গত কয়েক মাস ধইরা কোনো বিক্রি নাই। আশায় ছিলাম কোরবানি ঈদে কিছুটা হইলেও বিক্রি বাড়বো। তাও হইলো না। মানুষই আসে না। ঈদের আগে ঢাকার বাইরে থেইক্যা অনেক কসাই আসে দা, বঁটি কিনতে। এইবার তো কসাইও দেখি না। আর আসবে কেন? মানুষ তো কোরবানি দিতেছে না। আমাগো কষ্ট না খাইয়া মরতে হবে। আর মনে হয় দোকানও রাখতে পারবো না।’ কামার জব্বার বলেন- ‘আমাদের তো বছরে একবারই সবচেয়ে বেশি কামাই হয় কোরবানি ঈদে। এরপর সারা বছর টুকটাক যা আয় হয় তা দিয়া আমাদের ভালোই চইলা যায়। করোনা আইছে গরিবদের মারতে। গরিবদের তো আর জমানো টাকা নাই যে বইসা বইসা খাইবো। আমাগো কাম কইরা খাইতে হয়। বেচা-বিক্রি না থাকলে আমাগো কামও থাকবো না, বাঁচতেও পারবো না। আমরা করোনায় মরুম  না, আমরা মরুম অভাবে। করোনা শুরু হওয়ার পর পরিবারকে বাড়িতে পাঠায় দিছি। আমি ভাবছিলাম, কোরবানি ঈদে কিছুটা হইলেও বিক্রি বাড়বো। এখন তো তিন ভাগের এক ভাগও বিক্রি হয় না। ঈদের পরে দোকান ছাইড়া আমি বাড়িতে চইলা যামু। আমরা আছি বিপদে। আমরা ভিক্ষাও করতে পারি না। আবার সরকারও আমাদের কোনো সাহায্য করে না।’ কামার মালেক বলেন-‘কোরবানি ঈদ আসলে যেইখানে নাওয়া-খাওয়ার সময় পাই না সেইখানে অলস বইসা আছি। কোরবানি ঈদের আগে এমন সময় আর কোনোদিন দেখি নাই। মানুষ এখন ঘর থেইকা বাইর হইতেই ভয় পায়। কোরবানি দিবো না। দা,বঁটি কিনবোও না। ধারও দিবো না। আমরা বাঁচবো কেমনে? এই কাজ ছাড়া তো অন্য কাজ করতেও পারি না।’

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

ধামায় চাপা করোনা

১১ আগস্ট ২০২০

মুক্তি পেলেন সিফাত

১১ আগস্ট ২০২০

বরগুনায় ওসি’র লাঞ্ছনার শিকার সেই এএসআই প্রত্যাহার

১১ আগস্ট ২০২০

বরগুনার বসিরহাটে জনসম্মুখে লাঞ্ছনার শিকার এএসআইকে বামনা থানা থেকে সরিয়ে বরগুনা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা ...

চট্টগ্রামে সম্পাদকের বাড়ি ঘেরাওয়ের ঘটনায় নোয়াবের উদ্বেগ

১১ আগস্ট ২০২০

একজন সম্পাদকের বাড়ি ঘেরাও, সেখানে মাইকে স্ল্লোগান ও বক্তৃতা দেয়া এবং এসব ঘটনার জের ধরে ...

যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদন

ঈদে সড়কে প্রাণ গেল ২৪২ জনের

১০ আগস্ট ২০২০

বিদায় সুর সম্রাট

১০ আগস্ট ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত