সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ, বিকাশবাদই ভবিষ্যতঃ চীনকে মোদি

তারিক চয়ন

অনলাইন ৩ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, ৪:২৫

আজ হুট করেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি হাজির হন গালওয়ান এর কাছে ভারত-চীন সীমান্তে। তার সাথে ছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত ও সেনাপ্রধান এম এম নারাভানে। এরপর লেহ সফরে ভারতীয় জওয়ানদের উদ্দেশে ভাষণ দেন মোদি।

মোদির মূল বক্তব্য :

১) আপনারা এবং আপনাদের সহকর্মীরা যে বীরত্ব দেখিয়েছেন, তা বিশ্বের কাছে ভারতের শক্তি সম্বন্ধে বার্তা পৌঁছে দিয়েছে। আপনারা যেখানে মোতায়েন আছেন, তার থেকে আপনাদের সাহসিকতা আরো বেশি।

২) লেহ, লাদাখ থেকে সিয়াচেন, কার্গিল এবং গালওয়ানের বরফশীতল জল..প্রত্যেক পাহাড়, প্রত্যেক শৃঙ্গ ভারতীয় জওয়ানদের বীরত্ব দেখেছে।

৩) ১৪ কোরের সাহসিকতা এবং বীরত্ব নিয়ে সারা বিশ্বের মানুষ আলোচনা করবে। দেশের প্রতিটি বাড়িতে আপনাদের সাহসিকতা এবং বীরত্বের প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে।

৪) শত্রুপক্ষ আপনাদের মধ্যে থাকা আগুন এবং আক্রোশ দেখেছে।

৫) বীরত্বই শান্তির পূর্ব শর্ত। দুর্বলরা শান্তি আনতে পারে না।

৬) আমার সামনে মহিলা জওয়ানদের দেখছি। সীমান্তের যুদ্ধক্ষেত্রে এই দৃশ্য অনুপ্রেরণামূলক। আজ আমি আপনাদের গরিমার বিষয়ে কথা বলব।

৭) আমরা সেই মানুষ, যারা বাঁশি বাজিয়ে ভগবান কৃষ্ণের কাছে প্রার্থনা করি।
কিন্তু আমরাই সেই মানুষ যারা কৃষ্ণের শ্রদ্ধা করি এবং সুদর্শন চক্রধারী সেই ভগবান কৃষ্ণকেও অনুসরণ করি।

৮) সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ হয়ে গিয়েছে। এটা বিকাশবাদের যুগ। বিকাশবাদই ভবিষ্যত। অতীত সাক্ষী রয়েছে, সাম্রাজ্যবাদী শক্তি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, নাহলে হার মেনেছে।

৯) রাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় দুই মায়ের কথা স্মরণ করি আমি। একজন হলেন - আমাদের সবার ভারতমাতা। আর অপর মা হলেন, সেইসব মায়েরা, যারা আপনাদের মতো বীর সন্তানদের জন্ম দিয়েছেন।

১০) আমরা কঠিন পরিস্থিতিতে জয়লাভ করে এসেছি এবং ভবিষ্যতেও জয়লাভ করতে থাকব।

হিন্দুস্তান টাইমস অবলম্বনে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ফরিদ

২০২০-০৭-০৩ ১৩:৪০:১৩

ভারত যে কতটা আদিপাত্যবাদী তার পাশে থাকা বংলাদেশ,নেপাল ও ভোটান পুর পুরি অনুভব করে।

বিনয় ভূষন দাশ

২০২০-০৭-০৩ ০৯:৫৪:৫৮

প্রত্যেক দেশের নাগরিকই তার স্বদেশ ভূমিকে বিদেশী আগ্রাসনকারীদের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য আত্মত্যাগ করতে দ্বিধাবোধ করোনা।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অনেকটা সেইরূপ ।চীন একটা আগ্রাসী জাতি।জোর করে তিব্বত দখল,হংকং এর স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ,তাইওয়ান দখলের পায়তারা , উইঘুর মুসলিমদের জোর করে ধর্মান্তর ,দক্ষিন চীন সাগরে আধিপত্য বিস্তার ,ভিয়েতনামের সংগে একবার যুদ্ধে পরাজিত,জাপানের সংগে আগ্রাসী মনোভাব,সর্বশেষ ভারতের গ্যালওয়ান উপত্যকা দখল।তাছাড়া নভেল করোনা ভাইরাস ছডিয়ে বিশ্বকে হুমকির মুখে ফেলে দেওয়া।এবং এর সুযোগ নিয়ে বিশ্বে আধিপত্য কায়েমের অপচেষ্টা করা।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

ছড়া

করোনা

৩ আগস্ট ২০২০

আরব নিউজের রিপোর্ট

ঢাকা-ইসলামাবাদের শান্ত কূটনীতি

৩ আগস্ট ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত