চকরিয়ায় যুবলীগ নেতার হাতে অমানবিক নির্যাতনের শিকার বৃদ্ধ, ভিডিও ভাইরাল

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে

অনলাইন ২ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, ৬:০৫ | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৭

কক্সবাজারের চকরিয়ায় এক বৃদ্ধকে বিবস্ত্র করে অমানবিক নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। আজ দুপুর থেকে মানুষের ফেসবুক ওয়ালে ওয়ালে ঘুরছে এই ভিডিও। গত ২৪ এপ্রিল বিকালে চকরিয়া উপজেলার ঢেমুশিয়ার ছয়কুড়িটিক্কা পাড়ার হায়দার বাপের দরগাহ এলাকায় স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি আনছুর আলম নামের এক যুবকের নেতৃত্বে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটানো হয়। ওই ঘটনায় নির্যাতিত নুরুল আলমের ছেলে অাশরাফ হোসাইন ৩১ এপ্রিল থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও তদন্তেই আটকে রয়েছে অভিযোগটি। ভিডিওতে দেখা যায়, ওই বৃদ্ধকে লুঙ্গি খুলে দিয়ে শার্ট ছিঁড়ে দেয়া হয়। একই সময় ওই বৃদ্ধকে কিল-ঘুষি মেরে নির্যাতন চালানো হয়। আর কয়েকজন যুবক তা মোবাইলের ক্যামরায় ধারণ কর। তবে এসময় কেউ ওই বৃদ্ধকে বাঁচাতে এগিয়ে যায়নি।
এই ঘটনায় দায়ের করা এজাহারে আসামী করা হয়েছে- ওই এলাকার মৃত মনির উল্লাহর ছেলে বদিউল আলম (৫৫), আনছুর আলম (৩৫),শাহ আলম (৫২), শাহ আলমের স্ত্রী আরেজ খাতুন (৪৮), বদিউল আলমের ছেলে মিজানুর রহমান (২৮), আবদুল জাব্বারের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩২), জয়নাল আবেদিন (৩০) এবং মনজুর আলমের ছেলে মো.রুবেল (২৮)। ছেলে অাশরাফ হোসাইন বলেন, গত ২৪ এপ্রিল আমার বয়োবৃদ্ধ পিতা নুরুল আলম ঈদের বাজার করে ঢেমুশিয়া স্টেশন থেকে টমটম গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আনছুর আলমের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী টমটম থেকে আমার বাবাকে নামিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে পড়নে থাকা লুঙ্গি, গেঞ্জি ছিড়ে ফেলে। মারধর ও অসভ্য গালিগালাজও করে। কয়েকজন যুবক এসব ঘটনার মোবাইলের ক্যামরাতে ধারণ করে। এসময় আমার বাবা বাঁচাও বাঁচাও বলে শোরচিৎকার করতে থাকে। পরে ঘটনাটি শোনার পর আমার ছোট ভাই সিএনজি চালক সালাহউদ্দিন স্থানীয় লোকজনসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার বাবাকে উদ্ধার করে স্থানীয় এক চিকিৎসকের কাছে নিয়ে চিকিৎসা করায়। তিনি বলেন, ঘটনার সময় আমার বাবার ব্যবহৃত একটি মোবাইল সেট ও পকেটে থাকা নগদ সাড়ে সাত হাজার টাকাও ছিনিয়ে নেয়। তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে আমার বাবার উপর অমানবিক এই ঘটনার পুরো নেতৃত্ব দেয় সন্ত্রাসী আনছুর আলম। সে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে। এমন কোন অপকর্ম নেই, সে করেনা। তিনি এ ঘটনার সুষ্ট বিচার দাবি করেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

sami

২০২০-০৬-০২ ২০:০৪:৫৮

প্রশাসনেরদৃস্টিআকর্ষণকরছি

SYED SOFIUZZAMAN

২০২০-০৬-০২ ১৭:০৫:২৭

এসব ধরনের নেতাদের কঠোর শাস্তি প্রয়োজন। নতুবা তাদের জন্য একদিন আওয়ামী লীগক ধ্বংস হয়ে যাবে।

মৌলানা হেলাল উদ্দীন

২০২০-০৬-০২ ১৫:১৭:১৯

তুচ্ছ ঘটনা কি?

MD Polash

২০২০-০৬-০২ ১১:১২:০৭

অপরাধীকে শাস্তি দেয়ার আগে যারা এটা প্রচার করছে তাদের শাস্তি দেয়া হোক কেননা যারা ওখানে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করতে পারে না মোবাইলে ভিডিও করতে পারে তাদেরকে আগে শাস্তি দেয়া জরুরী তাহলে আর কোনদিন কোন পাবলিক অন্যায়ের প্রতিবাদ না করে মোবাইলে ভিডিও করতে যাবে না

বশির আহামদ

২০২০-০৬-০২ ০৯:০৬:৫৮

প্রশাসন যেন অপরাধী সহ যারা নিরব দর্শক ছিল সবাইকে ও বিচারের কাঠগড়ায় এনে সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করতে হবে এ গুলো মানুষ না জানুয়ার

palash

২০২০-০৬-০২ ০৮:৫২:০৯

কঠিন বিচার দাবি জানাই,এদের মতো যেন কেউ কোন সাহস না পায়। নিজ দলের নাম বিক্রিতি কারি এরা। ক্ষমতার অপব্যবহার কারি,আর একটু উচ্চ পদ পেলে কি করবে তা বলাই বাহুল্য!

Morsidul

২০২০-০৬-০২ ০৭:২৭:৫০

Whether he is a bastard? For what reason he is torturing a man who is at the age of his father?. Political identity not important in this case.3 he may be belonged to any party to meet his demand in the guise of political party worker. but when his fault and characters is revealed, he must be booked for exemplary punishment.

মোঃ জসিম উদ্দিন

২০২০-০৬-০২ ০৭:১১:০৬

প্রশাসন যেন অপরাধী সহ যারা নিরব দর্শক ছিল তাদেরকে ও বিচারের কাঠগড়ায় এনে সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

Kamal

২০২০-০৬-০২ ০৭:০৯:২৩

Staff reporter of Cox bazaar Manob Jomin please take care of your self. Insha Allah will save you.

MirAhmed

২০২০-০৬-০২ ০৬:৪৮:১৯

তথাকথিত রাজনীতি দাপট যুবলীগ নেতা চকোরিয়া নয় শুধু সারা দেশে এ অবস্থা আল্লাহ রাব্বুল আলামীন কবে যে এই তথাকথিত নেতাদের থেকে আমাদের রক্ষা করবেন আল্লাহতাআলা জানেন

tahir

২০২০-০৬-০২ ১৯:১৬:৩৫

We want cross fire this culprit. This kind of cowboys destroying country's image.

তপু

২০২০-০৬-০২ ০৫:৫৯:৩২

বিচার দাবি করছি।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত