করোনায় অন্ধকার দেখছেন পাপন

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ২২ মে ২০২০, শুক্রবার

১৯শে মার্চ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অনির্দিষ্ট কালের জন্য দেশের সব ক্রিকেট বন্ধ ঘোষণা করেছিলেন। তখন তিনি আশাও করেছিলেন ১৫ই এপ্রিলের পর ক্রিকেট মাঠে ফেরার। কিন্ত দ্ইু মাস পেরিয়ে গেছে। ২০শে মে-তে এসে তিনি নিরুত্তর। চোখে অন্ধকারই দেখছেন। কবে মাঠে ফিরবে ক্রিকেট এই প্রশ্নের উত্তর নেই তার কাছে। এমনকি এবার কোন সম্ভাব্য দিনের কথা ভাবতেও পারছেন না। ক্রিকেট কবে চালু হবে তা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বুধবার ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের এক অনুষ্ঠানে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘না কোনো আলোচনা হয়নি।
তা হবে কীভাবে। আমিতো কোনো তারিখ দিতে পারব না যে জুলাইয়ে খেলব, আগস্টে খেলব। কিছুই তো জানি না। কাজেই ওগুলো নিয়ে আলোচনা হচ্ছে না। এখানে বিশ্বকাপ যেটা ছিল সেটাই পেছানোর কথা বলছে। এখানে দ্বিপাক্ষিক কি হবে এটা বলা অত্যন্ত কঠিন। মানে বলতে চাই আইসিসি ইভেন্টগুলো কবে হবে আমরা জানি না। তাহলে ওই অনুযায়ী আবার রিশিডিউল করতে হবে। তো এটা বিরাট ঝামেলা। তবে এটা সবার জন্য তো একই। আমরা চেষ্টা করব বেশিরভাগ খেলা যা ছিল তা রাখতে পারি কিনা।’
মার্চ থেকে একের পর এক বাতিল হচ্ছে বাংলাদেশ দলের আন্তর্জতিক ক্রিকেট ম্যাচ। সব শেষ জুনে শ্রীলঙ্কায় টেস্ট সিরিজও যে হচ্ছে না একেবারেই স্পষ্ট। কারণ দেশের করোনা পরিস্থিতি এখন ভয়াবহ। দিন দিন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। তাই ক্রিকেটারদের নিয়ে কোনো ধরণের ঝুঁকি নিতে নারাজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বুধবার নাজমুল হাসান পাপনের কন্ঠেও শোনা যায় আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে অনিশ্চয়তার সুর। তিনি বলেন, ‘দেখেন হোস্ট (শ্রীলঙ্কা) করতে চাইলেই তো হলো না। আমরা (বাংলাদেশ) পাঠাতে পারব কিনা সেটিও বিষয়। আমাদের খেলোয়াড়দের পাঠানো ঠিক হবে কিনা এই মুহূর্তে। কোথায় থাকবে, কি করবে। এগুলো সহজ সিদ্ধান্ত না। একটা জায়গা এখন ভালো আছে, একমাস পরে দেখা গেল আবার হচ্ছে ওখানটায়। এটা তো বলা যাচ্ছে না শেষ হবে কোথায়। বা কখন কি পরিস্থিতি। আমরা অন্যদের পর্যবেক্ষণ করব। আইসিসি কি করে, এসিসি কি করে। অন্য দেশগুলো কি করছে। এখন পর্যন্ত কেউ নির্দিষ্ট তারিখ দিয়ে বলতে পারিনি খেলা কবে হবে। আমরাই এক্ষেত্রে প্রথম হবো এটা ভাবা ঠিক না।’
যতই দিন যাচ্ছে ক্রিকেট নিয়ে বিশ্ব জুড়ে জমাট বাঁধছে অনিশ্চয়তার কালো মেঘ। আন্তর্জতিক ক্রিকেট নিয়ে কোনো শুভ সংবাদ আসছে না। এমনকি কোন দেশই তাদের ঘরোয়া ক্রিকেটও চালু করতে পারেনি। বাংলাদেশেও একই অবস্থা দুই মাস ধরে ক্রিকেটাররা ঘরে বন্দি। তাই হঠাৎ করে শ্রীলঙ্কাতে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ  খেলতে যাওয়া কোন ভাবে সহজ নয়। কারণ টেস্টের জন্য যে প্রস্তুতি দরকার তা নেয়ার কোন সুযোগ নেই টাইগারদের। তাই বলার অপেক্ষা রাখেনা এই সিরিজটি শেষ পর্যন্ত বাতিল হচ্ছে। শঙ্কায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়াতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগও (বিপিএল)।
অন্যদিকে করোনায় ক্রিকেট না থাকলেও দেশের ক্রিকেটাররা বসে নেই। দূর্গত মানুষের সেবায় ঝাঁপিয়ে পড়েছেন তারা। নিজের ঐতিহাসিক সাখ্য রাখা ব্যাট, বল, জার্সি গ্লাভস এমনকি ব্রেসলেটও নিলামে তুলছেন। এর মধ্যে বাংলাদেশ দলের নয়া ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল লাইভ শো আয়োজন করে একের পর চমক দেখাচ্ছেন। ডুপ্লেসি, বিরাট কহোলি ওয়াসিম আকরামের মত বড় বড় তারকারা আসছেন তার অনুষ্ঠানে। দেশিয় বর্তমান ও সাবেক তারকারাও বাদ নেই। এমন এটি লা শোর দারুণ প্রসংসা করেন বিসিবি সভাপতি। নাজমুল হাসান বলেন, ‘খুবই ইম্প্রেসিভ (তামিমের অনুষ্ঠান) ও খুব ভালো করছে। সবাই উপভোগও করছে। এবং এটার স্ট্যান্ডাড ইজ  ভেরি হাই। আমরা সবাই অ্যাপ্রিসিয়েট করছি। এটা খুবই ভালো।’

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kalam Faraizi

২০২০-০৫-২২ ০৩:০২:১৬

আহা রে। কেহ তাহাকে একটি হারিকেন ধরিয়া দিন।

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত