আইএস বধূ শামীমার বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চেয়ে আবেদন করবেন তার বাবা

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:২১

মেয়ের জন্য বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চেয়ে আবেদন করতে পারেন আইএস বধূখ্যাত শামিমা বেগমের বাবা। জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএসে যোগ দিতে গিয়ে ২০১৫ সালে বৃটেন ছেড়েছিলেন তিনি। ফলে দেশটি তার নাগরিকত্ব বাতিল করে দেয়। সম্প্রতি একটি বৃটিশ আদালতে নাগরিকত্ব নিয়ে আইনি লড়াইয়ে হেরে যান শামিমা। রায়ে আদালত তাকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চাইতে বলে। বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এএফপির কাছে শামিমার বাবা জানান, তিনি তার মেয়ের নাগরিকত্বের জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে আবেদন জানাবেন।

বর্তমানে শামীমা বেগম সিরিয়ার একটি শিবিরে বাস করছেন। গত বছর ইসলামিক স্টেট পুরোপুরি পরাজিত হলে তিনি বৃটেনে ফিরতে চান বলে আবেদন জানান।
কিন্তু বৃটিশ সরকার আবেদন প্রত্যাখ্যান করে তার নাগরিকত্ব বাতিল করে দেয়। এর বিরুদ্ধে মামলা করেন শামিমা। তবে আদালতও সরকারের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে। রায়ে বলা হয়, যেহেতু শামীমা বংশানুক্রমে বাংলাদেশের নাগরিক তাই তার বৃটিশ নাগরিকত্ব কেড়ে নিলে তা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘণ করবে না। যদিও বাংলাদেশ জানিয়েছে, শামীমা বেগম বাংলাদেশের নাগরিক নয়।

শামীমার বাবা আহমেদ আলি জানিয়েছেন, তার মেয়ে যদি বাংলাদেশে ফিরে আসতে চায় তাহলে তিনি তার নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করবেন। তিনি বলেন, আমি তার জন্য দুঃখ অনুভব করছি। যে কোনও বাবা-মা’রই তার জন্য খারাপ লাগবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

shishir

২০২০-০২-১৪ ০৭:২০:০৪

যে কোনদিনই বাংলাদেশে আশে নাই। বাংলাদেশ নিয়ে চিন্তা করেনি শে কেন বাংলাদেশের নাগরিকত্ব এর জন্য আবেদন করবে? তবে ভুল ও অপরাধের জন্য খমা চাইলে মানবিক দিক বিবেচনায় আশ্রয় দেওয়া যেতে পারে! নাগরিকত্ব নয়।

shahjahan kabir

২০২০-০২-১৪ ১৮:৫৮:৪২

মিশরে থেকে গেলে সতস্যা কোথায়?

আপনার মতামত দিন



বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

সন্তানের সামান্য বিকলাঙ্গতা

দেশে ফেরত পাঠানোর ঝুঁকিতে বাংলাদেশি ডাক্তার দম্পতি

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত