নওগাঁয় জন আকাঙ্ক্ষার আলোচনায় পুলিশের বাধা

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, ২:৫৬ | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৪৫

নওগাঁয় জন আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ নামে সংগঠনের মুক্ত আলোচনায় পুলিশের বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার সকাল দশটায় সংগঠনটির আয়োজনে নওগাঁ জেলা শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভা শুরু হয়। এ সময় পুলিশ এসে বাধা দেয় বলে জানিয়েছেন সমন্বয়ক মজিবুর রহমান মনজু।

তিনি জানান, মুক্ত আলোচনা শুরু হয় আজ সকাল ১০ টার কিছুক্ষণ পর। বক্তব্য চলাকালীন ১১টার দিকে নওগাঁ পুলিশের এডিশনাল এসপি ফারজানা আক্তার ও রাকিবুল ইসলামের নেতৃত্বে জেলা পুলিশ ও ডিবি’র দুটি দল এসে অনুষ্ঠান স্থলের গেইট আটকে দেন। তারা ৫ টি প্রিজন ভ্যান নিয়ে অনুষ্ঠানের স্থল ঘিরে ফেলে এবং সরাসরি মঞ্চে এসে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়। গত ১২ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে অবহিত করণ ও অনুমতি চেয়ে আবেদন করার বিষয়টি জানানো সত্বেও পুলিশ মারমুখী হয়ে মাইক বন্ধ করে দেয়।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, পুলিশের দুর্ব্যবহারের ছবি মোবাইলে ধারণ করতে চাইলে জন আকাঙ্ক্ষার সংগঠক ফরিদুল ইসলামকে ডিবি পুলিশ আটক করে।
পরবর্তীতে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে তাকে ছেড়ে দেয় এবং প্রায় ১ ঘন্টা পর অনুষ্ঠান আবার শুরু হয়।


সভায় সাবেক জন প্রশাসন সচিব  এএফএম সোলায়মান চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন,   মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকার ও ধর্মীয় মূল্যবোধের সমন্বয়ে জাতীয় ঐক্য তৈরী করতে পারলে পরিবর্তন সহজতর হবে।  সকলের কন্ঠে আজ এক বক্তব্য তা হল ‘আমরা পরিবর্তন চাই’। কিন্তু এই পরিবর্তনের দায়িত্ব নিয়ে কেউ এগিয়ে আসছেনা। তিনি পুলিশি আচরণে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন প্রশাসনের এই আচরণে আমরা ক্ষুব্ধ, ব্যথিত ও মর্মাহত। বাংলাদেশের আইনে সভা সমাবেশ করা নাগরিকের মৌলিক অধিকার। আমরা সভা করার বিষয়টি আগেই অবহিত করেছি। পুলিশের দায়িত্ব সভার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কিন্তু তারা তা না করে উল্টো এসেছে সভা বন্ধ করতে ও গ্রেপ্তার করতে। তিনি বলেন এই অপ রাজনীতির পরিবর্তন করতেই আমরা নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।
মূল আলোচক মজিবুর রহমান মন্জু বলেন যারা স্বাধীনতা এনেছিলেন তারা ক্ষমতায় এসে জনগণের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। যারা স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছে তারা নতুন করে দেশ গঠন ও দেশের নেতৃত্ব নিতে চায়। যারা দেশ চায়নি তারা যখন দেশের নেতৃত্ব চায় তখন তাদের প্রতিপক্ষ এটাকেই তাদের প্রধান ত্রুটি হিসেবে তাদের ঘায়েল করছে। গত কয়েক যুগ ধরে দেশের মানুষ দুই পক্ষের এই সংঘাত মূখর রাজনীতি নিয়ে বিরক্ত। এই হতাশা ও বিরক্তির অবসান করতেই নতুন রাজনীতি আজ অপরিহার্য্য।
আলোচনা শেষে জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আতিকুর রহমান, জামায়াতের সাবেক জেলা আমীর জননেতা এরফান আলী, সাবেক জেলা জামায়াত সেক্রেটারি যুবনেতা আইনুল হক, নওগাঁ পৌরসভা ৬ নং ওয়ার্ড কমিশনার জনাব আব্দুল খালেক আনুষ্ঠানিকভাবে জন আকাঙ্ক্ষায় যুক্ত হবার ঘোষনা দেন।
আলোচনায় অংশ নিয়ে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সংগঠক শ্রমিক নেতা শাহ আব্দুর রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা আনোয়ার সাদাত টুটুল ও অন্যতম সংগঠক ড. মীর্জা সিদ্দিকুল ইসলাম ফরিদ।

আপনার মতামত দিন



অনলাইন অন্যান্য খবর

লক্ষ্মীপুরে সড়কে ঝরলো ৪ প্রাণ

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

পাপিয়ার জলকেলির ভিডিও ভাইরাল

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত