প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ

কূটনৈতিক রিপোর্টার

প্রথম পাতা ২৮ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩৪

চীনে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে পরিস্থিতির ক্রমাবনতির আশঙ্কায় সৃষ্ট আতঙ্কে দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকা বাংলাদেশিদের ফেরত আনার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার এ বিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম শাহরিয়ার আলম এমপি তার ভেরিফাইড ফেসবুকে দেয়া পোস্টে লিখেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন বাংলাদেশের নাগরিক, যারা চীন থেকে ফিরতে চাইবেন, তাদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করার জন্য। আমরা চীনা সরকারের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছি। কী প্রক্রিয়ায় তাদের ফেরানো যায়, তা বাস্তবতার নিরিখে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সম্মতির ভিত্তিতে করা হবে। দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তাই সরকারের প্রধান কাজ উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী জানান, যারা চীন থেকে ফিরতে আগ্রহী তাদের একটি তালিকা তৈরি হচ্ছে। ওই তালিকা তৈরি এবং সে অনুযায়ী দ্রুত পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশনা জারি (গতকাল) হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল উহানেই ৫০০ বাংলাদেশি অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছেন জানিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন একজন শিক্ষার্থী। উহানের সঙ্গে চীনের সব অঞ্চলের সড়ক, রেল এমনকি বিমান যোগাযোগও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে পরিস্থিতির ভয়াবহতা রোধে।
কার্যত উহান শহরে স্বাভাবিক জীবন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় উহান বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে ঢাকায় আবেদন জানান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও উহানে আটকেপড়ারা দেশে ফেরার আকুতি জানাচ্ছেন।

করোনা ভাইরাসের বিষয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর: চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া নোবেল করোনা ভাইরাস কোনোভাবেই যেন বাংলাদেশে আসতে না পারে সে বিষয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। করোনা ভাইরাস নিয়ে মন্ত্রিসভায় কোনো আলোচনা কিংবা প্রধানমন্ত্রী কোনো নির্দেশনা দিয়েছেন কি না-জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আরও সতর্ক থাকতে হবে, খেয়াল রাখতে হবে। চীন হয়ে যারা আসছেন, তাদেরও বিশেষভাবে দেখাশোনা করতে হবে। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, সবাইকে কেয়ারফুল থাকতে হবে। বিশেষ করে এয়ারপোর্ট এবং পোর্টে (বন্দর) স্পেশাল কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা রাখতে হবে। যাতে আমাদের মধ্যে বিস্তার না করতে পারে। চীন বা হংকং থেকে যেসব প্লেন আসবে সেগুলোতে বিশেষ নজর রাখতে হবে। চীনের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ হয় এমন পোর্টে বিশেষ নজর রাখতে হবে।

আপনার মতামত দিন



প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

কাহিল মধ্যবিত্ত

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

চীনা পণ্যের দাম নিয়ে খামখেয়ালি

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বুয়েট, চবির পথেই কি হাঁটবে ঢাবি

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কারাগারে বিদেশি বন্দি ৫৭৭

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছুটির নোটিশ

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আজ মানবজমিন-এ ছুটি থাকবে। তবে বিশেষ ব্যবস্থায় আগামীকাল পত্রিকা প্রকাশিত হবে। ...

সিপিডির সেমিনারের তথ্য

২০৩০ সালে দেশ থেকে অর্থ পাচার ১৪ বিলিয়ন ছাড়াবে

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত