যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে

স্টাফ রিপোর্টার

দেশ বিদেশ ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রোববার

যৌতুক না পেয়ে স্ত্রী ও তার পরিবারকে মিথ্যা হত্যা চেষ্টার মামলা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে। গতকাল দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনে (ক্র্যাব) এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন কনস্টেবলের স্ত্রী রুনু সুলতানা। এ সময় তার দুই শিশু সন্তান ও মা উপস্থিত ছিলেন। লিখিত বক্তব্যে রুনু সুলতানা জানান, ২০১১ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর পুলিশ কনস্টেবল মো. জহিরুল ইসলামের সঙ্গে তার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তারা দুজনের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর থানার শিবপুর গ্রামে। জহিরুল বর্তমানে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ ছোটফুল পুলিশ লাইনে কর্মরত। তাদের সায়মা কুরসী নিহা (৮) ও মাহাদী কালবী আজীম (১৮ মাস) নামের দুই সন্তান রয়েছে। রুনু সুলতানা অভিযোগ করে বলেন, তার স্বামী জহিরুল ইসলাম তাদের দুই সন্তান ও তার ভারণপোষণ দিচ্ছেন না।
বিভিন্ন সময় ভরণপোষণ চাইতে গেলে দুই সন্তানকে অস্বীকার করেন। এসব বিষয় চট্টগ্রামের ডিআইজি এবং জহিরুল যেই এসপির অধীন কাজ করছেন তাকে লিখিত অভিযোগ করেছেন। গত ঈদুল আজহার পরের দিন জহিরুল তার নিজের বাড়ি থেকে কোথাও গিয়ে তার পুরুষাঙ্গ সামান্য অংশ কেটে আনে। পরে তাকে এবং তার বৃদ্ধা মা ও দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে নবীনগর থানায় একটি হত্যা চেষ্টার মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার স্বাক্ষী ও বাদী জহিরুলের বানানো। এসব ঘটনার বিচার চেয়ে এসপির কাছে গেলে এসপি তার রুমে বসিয়ে রেখে পুলিশ ডেকে ধরিয়ে দেন। পরে তিনি শিশু সন্তানকে নিয়ে তিন মাস জেল খাটেন। জেল থেকে বের হওয়ার পরও জহিরুল কল করে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়গুলো উল্লেখ করে আইজিপি বরাবর অভিযোগপত্রও দেন তিনি। এখন দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে প্রতিমাসে আদালতে হাজিরা দিতে হচ্ছে। এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপিসহ সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগী এই নারী। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কনস্টেবল জহিরুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, তার স্ত্রীর অভিযোগ মিথ্যা। তিনি তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেননি। তার মা মামলা করেছেন। এবং সেটি সত্য মামলা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

zahir

২০২০-০১-২৭ ১৪:২২:০৫

কোন প্রকার যাচাই করা ব্যাতিত স্বার্থপ্রিয় সংবাদ প্রচারনা করে, এমন সব রিপোর্টারদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের মাধ্যমে নির্মূল করা জরুরি। অহেতুক হয়রানি ও একতরফা প্রচারনার ফলে সামাজিক বৈষম্যের জটিলতা বৃদ্ধি ও গণমাধ্যমের প্রতি মানুষ আস্হাহীন হচ্ছে।

আপনার মতামত দিন



দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

আইসিডিডিআর,বি’র গবেষণা

স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রচেষ্টায় গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

স্বাস্থ্যকর্মীদের সক্রিয় অংশগ্রহণে উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে একটি নতুন পদ্ধতি প্রয়োগের মাধ্যমে সফলতা পাওয়া গেছে এমনটাই বলছে ...

শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই- মির্জা ফখরুল

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। মানুষের অধিকার হরণ করা ...

দৌলতদিয়ায় আরেক যৌনকর্মীর লাশ দাফন

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ ঘাট উপজেলার যৌনপল্লীর কেউ মারা গেলে তাদের পানিতে ভাসিয়ে দেয়া বা মাটিচাপা দেয়া ...

৫৭ লাখ মানুষকে সেবা দিয়েছে পুলিশের ৯৯৯

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

 পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, এই দেশে ত্রিপল নাইন সার্ভিস চালু হয়েছে মাত্র ...

করোনা ভাইরাসে মৃত বেড়ে ২২৩৬ আক্রান্ত ৭৫০০০

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

 বেড়েই চলেছে করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯) মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা। বিগত কয়েকদিন ধরে গড়ে প্রতিদিন মারা ...

আন্দোলনের মাধ্যমে ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে: ইশরাক

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

 সদ্য শেষ হওয়া ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ও দলের চেয়ারপারসনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক ...

গ্রন্থমেলায় ডাকসু’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

রক্তের বিনিময়ে সফলতার শুরু, চূড়ান্ত বিজয়ও এসেছে রক্তস্রোতে। বাঙালি জাতির ইতিহাস- সংগ্রাম, আত্মত্যাগ ও লড়াকু ...

শীতকালীন সবজির দাম আকাশছোঁয়া

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

শীত শেষ হতেই চরা রাজধানীর কাঁচা বাজার। খুচরা বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যসামগ্রী ভোক্তাদের ক্রয় ক্ষমতার ...

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে লেনদেন ৪০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

দেশে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে প্রতিদিনই বাড়ছে গ্রাহক। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে লেনদেনের পরিমাণও। ডিসেম্বরে মোবাইল ...



দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত