লালমনিরহাটে বিএসএফ’র গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

শেষের পাতা ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:২১

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা আমঝোল সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছে। এ সময় আরো ১ জন আহত হলেও সে নিখোঁজ রয়েছে। গতকাল সকালে ওই সীমান্তের ৯০৭ নং মেইন পিলারের ৪-এস সাব-পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

সূত্রমতে, সীমান্তে গরু আনতে যায় বাংলাদেশি একদল যুবক। এ সময় ভারতীয় কুচবিহার জেলার শিতাই থানার ধুমেরখাতা বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় বিএসএফ’র গুলিতে পূর্ব আমঝোল এলাকার শাহজাহান আলীর পুত্র সুরুজ আলী (৩০) ও একই এলাকার ওসমান আলীর পুত্র সুরুজ হোসেন (২০) গুলিবিদ্ধ হয়। তাদের সঙ্গীরা ২ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে সুরুজ আলী (৩০) ও সুরুজ হোসেন (২০) মারা যান। এ বিষয়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র লালমনিরহাট ক্যাম্পের অধিনায়ক লে. কর্নেল তৌহিদুল আলম বলেন, আমরা দুইজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি।
৮-১০ জন বাংলাদেশী গরু আনার উদ্দেশ্যে সীমান্ত এলাকায় যায়। এ সময় ১০০ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ’র পাগলীমারী ক্যাম্পের টহল দল তাদের লক্ষ্য করে গুলি করে। তিনি বলেন, গতকাল সকালে স্থানীয় সূত্রে জানতে পেরে তাৎক্ষণিক বনচৌকি বিওপি কমান্ডার ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় সীমান্ত পিলার ৯০৭/৪-এস থেকে আনুমানিক ৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে (জিআর-২৬৭৮৫৪ মানচিত্র ৭৮ এফ-৮) আমঝোল নামক স্থানে মো. সুরুজ হোসেনের লাশ পাওয়া যায়। এ ছাড়া এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ সুরুজ আলী নামে আরো একজন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। বিএসএফ’র কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠকের আহ্বান করা হয়েছে এবং ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে জোরালো প্রতিবাদ জানানো হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Sultan

২০২০-০১-২৩ ০৩:৩৪:২৫

ইননা লিল্লাহিল অয়া ইলাহি রাজেউনন। এসব বেআইনি হর্তা কান্ড ভারত কোন দিন বন্ধ করবে না এসব হর্তা কান্ডের বিচার মহান আল্লাহ্রর কাছে দিলাম। আওয়ামী গুন্ডা খুবই খুশী সব হর্তা কান্ডে এটা তাদের জন উপহার ভারত থেকে। আল্লাহ্রর নালত তাদের উপর যারা ক্ষমতায় থেকেও প্রতিবাদ ও বিচার করতে ইচ্ছুক।

আপনার মতামত দিন



শেষের পাতা অন্যান্য খবর

একুশে পদক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

ইতিহাস কেউ মুছে ফেলতে পারে না

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত