ভোট ডাকাতির ফিল্ড তৈরি করছে সরকার

স্টাফ রিপোর্টার

শেষের পাতা ১৫ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৬

লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নয়, বর্তমান সরকার ভোট ডাকাতির ফিল্ড তৈরি করছে বলে মন্তব্য করেছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন। গতকাল খিলগাঁও এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে তিনি এ মন্তব্য করেন। এ সময় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা বিবেচনায় ভোটের সময় পেছাতে নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধও জানান তিনি। তিনি বলেন, গত ১৩ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের মেয়ররা ঢাকাকে বসবাসের অযোগ্য হিসেবে গড়ে তুলেছেন। ঢাকা আজ সবচেয়ে দূষিত ও বসবাসের অযোগ্য শহরের তালিকায় ১ নম্বরে আছে। এই এলাকায় আসার সময় দু’পাশের যে জলাশয়, রাস্তাঘাটের করুণ দশা দেখেছি, তা দেখে সত্যিই খারাপ লেগেছে। এই সরকার বলে তারা উন্নয়ন করেছে, স্যাটেলাইট পাঠাচ্ছে, অমুক সেতু, তমুক সেতু, কিন্তু এগুলো সবই আসলে দূর্নীতির প্রজেক্ট। মেগা প্রজেক্ট তারা করছে, সেখান থেকে লক্ষ-হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে আরাম আয়েশ করছে।
আর বাংলাদেশে আমরা যারা সাধারণ জনগণ, নাগরিকরা রয়েছি, তাদের দূর্দশা বেড়েই চলেছে। দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই, কারো কথা বলার অধিকার নেই। উন্নয়নের নামে ধোয়া তোলা হচ্ছে কিন্তু আমরা কোনো উন্নয়ন দেখতে পাচ্ছি না।
ইশরাক বলেন, তাকে এবং তার দলের মনোনীত কাউন্সিলরদের ঠিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে দেয়া হচ্ছে না। তবে এ বিষয়ে এখন আর কোন অভিযোগ নেই। সরকার নির্বাচনে পেশী শক্তির ব্যবহার করবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। তিনি বলেন, আর কোনও অভিযোগ দেবো না, জনগণকে নিয়ে সামনে এগিয়ে যাবো, কোনো বাধা মানা হবে না, জনগণের ভোটাধিকার প্রয়োগে শেষ পর্যন্ত মাঠে থেকে প্রতিরোধ গড়ে তুলবো। মেয়র নির্বাচিত হলে ঢাকা দক্ষিণ সিটির অবহেলিত এলাকাগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উন্নয়ন করবেন বলেও ভোটারদের প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।
তিনি বলেন, আপনাদের কাছে প্রতিজ্ঞা করছি, সুখে-দুঃখে সব সময় পাশে থাকবো। আমি আমার রক্ত, ঘাম দিয়ে, পরিশ্রম করে এই এলাকা উন্নয়ন করবো। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচন আমি ইশরাক হোসেনের লড়াই নয়, এটা ধানের শীষের লড়াই, জনগণের লড়াই, গণতন্ত্রের লড়াই। আপনারা সেই লড়াইয়ে শরীক হবেন। ইনশাআল্লাহ ৩০ তারিখে ভোট দেবেন। আমরা সেই পরিবেশ নিশ্চিত করবো। আপনাদের অধিকার, কথা বলার অধিকার ফিরিয়ে আনবো।
ধানের শীষের পোস্টার কম দেখা যাচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। যারা পোস্টার লাগাতে যাচ্ছে তাদের বাধা দেয়া হচ্ছে, মারধোর করা হচ্ছে। এমনকি হুমকি দেয়া হচ্ছে- পোস্টার লাগাতে আসলে থানা পুলিশে দিবে। পোস্টার লাগানো কি অপরাধ? এটা তো অপরাধ নয়, তাহলে কেনো থানা পুলিশে দেয়ার হুমকি দিবে? আপনারা জানেন, দেশে একটা অপশাসন, স্বৈরশাসন চলছে, একটা ফ্যাসিস্ট সরকার ক্ষমতায় রয়েছে। গণসংযোগে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসসহ স্থানীয় বিএনপির নেতা, ছাত্রদল, যুবদল, মহিলাদল, সেচ্ছাসেবক দলসহ হাজার হাজার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

সড়কে ঝরলো ১২ প্রাণ

২৯ জানুয়ারি ২০২০

সংবাদ সম্মেলন

সিলেটে ‘ফ্ল্যাট’ কিনে দিশাহারা ৮৪ মালিক

২৯ জানুয়ারি ২০২০

শূন্য শূন্য লাগে উহানে

২৮ জানুয়ারি ২০২০





শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত