‘আপিল বিভাগে এমন অবস্থা আগে কখনো দেখিনি ’

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ৫ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৪:২৯ | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩৬

আমরা আপিল বিভাগে এমন অবস্থা আগে কখনো দেখিনি । বাড়াবাড়ির একটা সীমা আছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন । বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন,অর্ডার দেয়া হয়ে গেছে। এজলাসে বসে আদালতের পরিবেশ নষ্ট করবেন না। খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট দাখিল ও জামিন বিষয়ক শুনানির দিন ধার্যের আদেশ দেয়ার পরও আদালতকক্ষে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের অবস্থান-হইচইয়ের প্রেক্ষাপটে তিনি এসব কথা বলেন। খালেদা জিয়ার সবশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থা জানিয়ে মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন আজ আপিল বিভাগে দাখিল হয়নি। এটিসহ দুটি প্রতিবেদন কোনো ধরনের ব্যর্থতা ছাড়াই ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে দাখিল করতে সকালে নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ। ১২ ডিসেম্বর বিষয়টি আদালতের কার্যতালিকায় আসবে।এই শুনানি চলাকালেই রাষ্ট্রপক্ষ ও খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের মধ্যে হইচই হয়।
হইচইয়ের মধ্যেই আদালত আদেশ দেন।বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা আদালত কক্ষে অবস্থান নেন। তাঁরা হইচই করতে থাকেন।সকাল ১০টার দিকে দিকে বিচারপতিরা আদালতকক্ষ ত্যাগ করেন।বিচারপতিরা চলে যাওয়ার পরও বিএনপি-সমর্থক আইনজীবীরা আদালতকক্ষে বসে থাকেন।বিরতির পর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিচারপতিরা এজলাসে আসেন। অন্য মামলার কার্যক্রম শুরু হয়। তখনো বিএনপি-সমর্থক আইনজীবীরা আদালতকক্ষে বসে ছিলেন। তাঁরা হইচই করেন। উই ওয়ান্ট জাস্টিস বলে স্লোগান দেন। বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা টেবিল চাপড়ান। একপর্যায়ে সরকার-সমর্থক ও বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটের দিকে বিএনপিপন্থী কয়েকজন আইনজীবী স্লোগান দেন, উই ওয়ান্ট জাস্টিস। তাঁরা শেইম, শেইম বলেন স্লোগান দেন।এসময় খালেদা জিয়া, খালেদা জিয়া স্লোগান দিতেও দেখা গেছে। পরে এক পর্যায়ে ১টা১৫ মিনিটে বিচারপতিরা আদালতের এজলাস ত্যাগ করেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ফারুক

২০১৯-১২-০৫ ০৮:৩১:২১

নেয়ায় বিচার করেন আর দেখবেন না ?

mollah halim

২০১৯-১২-০৫ ০৭:৪১:২২

Bangladesh never has seen a justice like you who is totally operated by government

mohammad

২০১৯-১২-০৫ ২০:০৩:৪৮

আমরা জনগন মর্মাহত!

Habibur Rahman

২০১৯-১২-০৫ ০৬:৫৩:০৩

You have made this situation. We don’t expect any justice from you. Shame. How can you listen only government. No respect for you.

Md Ahmed

২০১৯-১২-০৫ ০৬:৪১:৫৭

কি ভাবে দেখবেন এর আগে আপনার মত সরকার এর নতজানু বিচার পতি এজলাসে বসেন নি,

Maqsoud

২০১৯-১২-০৫ ০৬:২১:৩৩

এ জাতিও ইতোপূর্বে এমন নির্লজ্জ একচোখা বিচারক আর এমন নতজানু বিচার ব্যবস্থা দেখেনি।দুর্ভাগ্য এই যে সবাই জনগনকে বোকা ভাবেন।

রাহমান

২০১৯-১২-০৫ ০৪:৪২:০২

স্যার আপনি আগে এমন অবস্থা দেখেনি সত্য, তবে আগে এমন একচোক্ষ বিচারপতি কি আপনি দেখছেন তা মিথ্যে কি বলব আর

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

রায়ে রোহিঙ্গাদের বৈশ্বিক স্বীকৃতি

প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টির চাপে পড়বে মিয়ানমার: ঢাকা

২৪ জানুয়ারি ২০২০

দুই ফোনের দাম কমালো ভিভো

২৩ জানুয়ারি ২০২০





অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



আইনজীবী ইন্দিরার সমালোচনায় কঙ্গনা

ওই মহিলাকে চার দিন ধর্ষকদের সঙ্গে জেলে রাখা উচিত