‘মিয়ানমারের আন্তর্জাতিক আইন নিয়ে প্রশ্ন করার তো কোনো সুযোগ নেই’

এক্সক্লুসিভ

তামান্না মোমিন খান | ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:০৩
আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন বলেছেন, জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংসতার অভিযোগ তদন্ত অনুমোদনে মিয়ানমারের নৈতিক পরাজয় ত্বরান্বিত হয়েছে। মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের দমন-পীড়নের পুরো ঘটনাটাই অস্বীকার করে এবং পুরো সংকটকে তারা ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে। মিয়ানমারের সেই ব্যাখ্যাটা আর বিশ্ববাসীর কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। আইসিসি’র তদন্ত অনুমোদন আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী দেয়া হয়নি মিয়ানমারের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে দেলোয়ার হোসেন বলেন, মিয়ানমারের এমন অভিযোগ ভুল। তারা আত্মপক্ষ সমর্থনে এমন কথা বলেছে। তারা তো জাতিসংঘকে রাখাইনে প্রবেশ করতেই দেয় না। মিয়ানমার নিজেই আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করেছে। দেশে ফেরত নিচ্ছে না।
রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব হরণ করে রেখেছে। সেই মিয়ানমারের আন্তর্জাতিক আইন নিয়ে প্রশ্ন করার তো কোনো সুযোগ নেই। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আইসিসি একটি ভূমিকা পালন করছে। তাদের এই উদ্যোগ মিয়ানমারের ওপর নৈতিক চাপ সৃষ্টি করবে। কিন্তু আইসিসি’র এই প্রক্রিয়াটি লম্বা। সরাসরি চাপ সৃষ্টি করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত হবে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অপহরণের ৫দিন পর মিললো শিশুর লাশ

তামিলদেরও নাগরিকত্ব বিলে আনার আহ্বান

নাগরিকত্ব বিল মুসলিমদের বিরুদ্ধে বৈষম্য

‘সুচির আত্মপক্ষ সর্মথনের সুযোগ আছে বলে মনে হয় না’

কলকাতার বাজারে পদ্মার ইলিশ কিনলে পেঁয়াজ ফ্রি

বৃটিশ নির্বাচনে বাংলাদেশ, পাকিস্তানের মুসলিম প্রার্থীদের রেকর্ড

শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, স্কুল কর্মচারি গ্রেপ্তার

আবেগি চিরকুট লিখে বিষপান, অধ্যক্ষের কক্ষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লো নূপুর

আনোয়ারের কাছেই ক্ষমতা হস্তান্তর করবো: মাহাথির

‘সব মিলিয়ে পছন্দ হলে সামনে জানাবো’

নিউজার্সিতে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৬

সেনা প্রধানসহ মিয়ানমারের ৪ কর্মকর্তার ওপর ফের নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের

গণহত্যায় রক্তস্রোত বয়ে গেছে

আইনের শাসন সমুন্নত রাখতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে

জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহারের মত হাইকোর্টের

নৃশংসতার মুখপাত্র