বান্দরবানে হাসপাতালের রান্নাঘর-গ্যারেজের নামে কোটি টাকা লোপাট

বাংলারজমিন

নুরুল কবির, বান্দরবান থেকে | ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫০
গণপূর্ত বিভাগের তত্ত্বাবধানে বান্দরবান সদর হাসপাতালের ২৫০ শয্যার নতুন ভবন নির্মাণের জন্য পুরাতন রান্নাঘর ও গাড়ির গ্যারেজ ভেঙে ফেলায় অস্থায়ীভাবে নতুন করে কোটি টাকা বরাদ্দে রান্নাঘর ও গ্যারেজ নির্মাণের কাজে অর্থ লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, বান্দরবান সদর  হাসপাতালকে ১০০ শয্যা থেকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণের লক্ষ্যে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য ভেঙে ফেলা হয় হাসপাতালের রান্নাঘর ও গাড়ি রাখার গ্যারেজ। পরে অস্থায়ীভাবে রান্নাঘর ও গ্যারেজ নির্মাণের জন্য কোটি টাকার অপারেশন প্ল্যান ইনভেস্টমেন্ট ওপিআই টেন্ডার দেয় গণপূর্ত বিভাগ। হাসপাতাল নির্মাণের ঠিকাদার রয়েল এসোসিয়েট ফাইভ পার্সেন্ট লেসে ৪৪ লাখ টাকা ব্যয়ে রান্নাঘর নির্মাণ এবং ৪৪ লাখ টাকা ব্যয়ে গ্যারেজ ও সিকিউরিটি গেট নির্মাণের কাজটি সমাপ্ত করেন। কিন্তু সরজমিন গিয়ে দেখা গেছে, ১৭ ফিট বাই ৩৬ ফিট আধা পাকা টিন শেড রান্না ঘর ও ১৫ ফিট বাই ২৮ ফিট একটি আধা পাকা টিন শেড গ্যারেজ এবং ২৮ফিট লম্বা ৮ফিট উচ্চতার লোহার গ্রিলের সিকিউরিটি গেট নির্মাণ করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক কর্মচারী বলেছেন, কাজগুলোর মান খুবই নিম্নমানের। যে রান্নাঘর ও গ্যারেজটি তৈরি করা হয়েছে তাতে ৬ থেকে ৭ লাখ টাকার বেশি খরচ হওয়ার কথা নয়। টেন্ডারের মূল কাজে যে টাকা খরচ হয়েছে রিপিয়ারিং এর কাজে তো তার বেশি খরচ হবে না।
এ কাজের জন্য এতো টাকার টেন্ডার সরকারের টাকার অপচয় ছাড়া কিছু নয়।

এবিষয়ে গণপূর্ত বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী ফয়জুর রহমান বলেন, দুটি টেন্ডারে ৫০ লাখ করে রান্নাঘর এবং গ্যারেজ ও সিকিউরিটি গেটের কথা উল্লেখ থাকলেও হাসপাতালের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ করা হয়েছে। টেন্ডারে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়নি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চাহিদামতো হাসপাতালের সৌন্দর্যকরণ ডাক্তারদের আবাসিক কোয়ার্টারের বিভিন্ন রিপিয়ারিং কাজ বাউন্ডারি ওয়াল সম্প্রসারণের কাজ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রকল্পের ৭০ ভাগ বিলও উত্তোলন করে নিয়েছেন ঠিকাদার কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে কাজটি এখনো বুঝিয়ে দেয়া হয়নি। গণপূর্ত বিভাগ জানায়, ইতিমধ্যে কাজটি বুঝে নেয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়া হয়েছে। আশা করি কয়েকদিনের মধ্যে তাদেরকে কাজগুলো বুঝিয়ে দেয়া হবে। সদর হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক সিভিল সার্জন ডাক্তার অংশৈ প্রু মারমা বলেন, এ রান্নাঘর ও গ্যারেজের নামে কত টাকা টেন্ডার এবং কি কি কাজ রয়েছে সে বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। তবে হাসপাতালের নতুন ভবনের জন্য পুরাতন রান্নাঘর ও গ্যারেজ ভেঙে ফেলায় তারা নতুন করে সেগুলো তৈরি করে দিয়েছে। এবং কিছু কিছু জায়গায় তারা রিপিয়ারিং এর কাজও করেছে। তবে এগুলো টেন্ডারের কাজ কিনা আমি সেটি জানি না। আমরা কাজ এখনো বুঝে পায়নি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কিস-এর শাখা খোলা চূড়ান্ত করতে যশোর আসছেন কিট-কর্তা

মধ্যপ্রাচ্যে নারী শ্রমিক পাঠানো বন্ধে হাইকোর্টে রিট

৫ দাবিতে আন্দোলনে কুবির প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থীরা

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আইসিসি’র রায় সব দেশ মানতে বাধ্য: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ারকে তলব

রংপুর এক্সপ্রেস দুর্ঘটনা: ২ তদন্ত কমিটি উল্লাপাড়ায়

শাকিব খানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ১০ লাখ টাকা জরিমানা

জুতা চুরির মামলা

সড়ক আইন বাস্তবায়নে বাড়াবাড়ি না করার আহ্বান কাদেরের

যুদ্ধাপরাধ ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগে বৃটেনের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে পারে আইসিসি

নওগাঁয় ট্রাকচাপায় মা-মেয়ে নিহত, নানা-নাতি আহত

অস্ট্রেলিয়ার দু’রাজনীতিককে ভিসা দেয়নি চীন

সিলেটে পিয়াজ কিনতে লাইনে মেয়র আরিফ

ঝিনাইদহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জনযুদ্ধের আঞ্চলিক নেতা নিহত

শ্রীলঙ্কায় ঐক্য স্থাপন কঠিন হবে, আতঙ্কে সংখ্যালঘুরা

রোনালদোর গোল, ইউরোর মূলপর্বে পর্তুগাল