ট্রামেপর অভিশংসন তদন্ত

আগামী সপ্তাহ থেকে গণশুনানি শুরুর ঘোষণা

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৫
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রামেপর বিরুদ্ধে চলমান অভিশংসন তদন্তে গণশুনানি শুরুর ঘোষণা দিয়েছে ডেমোক্রেটরা। আগামী বুধবার প্রথম গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তিন কর্মকর্তার সাক্ষ্য দেয়ার কথা রয়েছে। এখন পর্যন্ত এই তদন্তে রুদ্ধদ্বার শুনানিতে সাক্ষ্য নিয়েছেন তদন্তকারীরা। তদন্তটি পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের তিন কমিটি। গত সপ্তাহে তদন্তটি নিয়ে রুদ্ধদ্বারের বদলে গণশুনানি চালু বিষয়ক বিল পাস হয় প্রতিনিধি পরিষদে।  

গত ২৫শে জুলাই ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ট্রামেপর এক ফোনকল নিয়েই এই তদন্ত চলছে। ওই ফোনকলে নিজের ডেমোক্রেট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে  ইউক্রেনে সরকারি তদন্ত চালু করতে জেলেনস্কিকে চাপ দেন ট্রামপ।
অভিযোগ ওঠেছে, এক্ষেত্রে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন ট্রামপ। বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত চালু না করলে ইউক্রেনের জন্য বরাদ্দ করা সহায়তা আটকে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে তার বিরুদ্ধে। তবে ট্রামপ সব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। অভিযোগ প্রমাণিত হতে ক্ষমতাচ্যুত হতে পারেন তিনি।

ট্রামেপর অভিশংসন তদন্ত দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন হাউজ ইন্টিলিজেন্স কমিটি চেয়ারম্যান এডাম শিফ। তিনি বুধবার জানান, প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে একটি অভিশংসন মামলা তৈরি করা হচ্ছে। আগামী সপ্তাহ থেকে গণশুনানি শুরু হবে। তা টেলিভিশনে সরাসরি সমপ্রচার করা হবে। শুনানিতে প্রত্যক্ষদর্শীদের প্রশ্ন করবেন রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট নেতারা। সর্বপ্রথম সাক্ষ্যদানকারী একজন হচ্ছেন বিল টেইলর। তিনি ইউক্রেনে নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত। গত সপ্তাহে ট্রামেপর বিরুদ্ধে কিছু বিস্ফোরক তথ্য দিয়েছেন তিনি।

ডেমোক্রেটরা টেইলরের সাক্ষ্যের কিছু অংশ প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত চালু করতে ইউক্রেনের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে ৪০ কোটি ডলার সামরিক সহায়তা আটকে রেখেছিলেন ট্রামপ। বাইডেন আগামী বছর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে প্রথম সারির ডেমোক্রেট প্রার্থিতাপ্রত্যাশী।

টেইলর ছাড়া আগামী বুধবার আরো সাক্ষ্য দেবেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা জর্জ কেন্ট। তিনি পূর্বে জানিয়েছেন, ট্রামেপর ব্যক্তিগত আইনজীবী রুডি জুলিয়ানি ইউক্রেনে বাইডেন ও তার ছেলের বিরুদ্ধে তদন্ত চালুর জন্য চেষ্টা চালাচ্ছিলেন। এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশের পর এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা তাকে এ বিষয়ে চুপ থাকতে বলেছিলেন। জুলিয়ানি অবশ্য কোনো অপরাধ না করার দাবি করেছেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এই সরকার স্বৈরাচারের বাবা: ফখরুল

আশুলিয়ায় বাস-পিকআপ’র মুখোমুখি সংঘর্ষ, আহত ১২

কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বন্ধের আহ্বান

‘কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট’ লিটনের বদলে মিরাজ

প্রথম সেশনের পর আর ব্যাটিংয়ে নামেননি লিটন

উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বখাটের লাথিতে প্রাণ গেলো বাবার

বিশ্বজুড়ে শিশুদের মধ্যে শারীরিক নিষ্ক্রিয়তা, বাংলাদেশে সবচেয়ে কম

শ্রীনগরে বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১০

কুষ্টিয়ায় বয়লার বিস্ফোরণে ৪ শ্রমিক দগ্ধ

মির্জাগঞ্জে ডাক্তার শূণ্য উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র

সাতক্ষীরায় সাড়ে ৪ কেজি স্বর্ণ জব্দ

পড়াশোনা শেষে বিদেশিদের চাকরির সুযোগ কঠিন হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে

ইডেন টেস্ট দেখতে কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী

খালেদার মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

বাংলাদেশ ও টেস্ট ক্রিকেট: উনিশ বছর পরও পুরোনো হাহুতাশ

কমান্ডো ঘেরা বিশেষ বক্সে বসে খেলা দেখবেন শেখ হাসিনা