ইটনায় প্রেসিডেন্ট

‘নকল করে ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট হয়ে কোনো লাভ হবে না’

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে

দেশ বিদেশ ১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:১৮

প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, আমি জীবনে ভালো করে সেকেন্ড ডিভিশন পাইনি। আমি সব সময় থার্ড ডিভিশনে পাশ করেছি। পাশ করেছি থার্ড ডিভিশনে কিন্তু জীবনেও নকল করিনি। নকল করে ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট হলে কোন লাভ হবে না। চাকরি পাওয়া যাবে না। ওই সব পরীক্ষায় জিরো পেয়ে ফিরতে হবে। তাই ছাত্র-ছাত্রীদের ভালো করে পড়ার কোন বিকল্প নেই।
রোববার বিকালে সাবেক নির্বাচনী এলাকার ইটনা উপজেলায় এক সুধি সমাবেশে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ এসব কথা বলেন। কিশোরগঞ্জ জেলায় প্রেসিডেন্টের এক সপ্তাহব্যাপী সফরের পঞ্চম দিনে ইটনা সদরে অবস্থিত প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ সরকারি কলেজ মাঠে এই সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
বক্তৃতায় প্রেসিডেন্ট বলেন, আগে ইটনায় দু’টি, নিকলী ও অষ্টগ্রামে একটি করে হাইস্কুল ছিল। মিঠামইনে কোন হাইস্কুল ছিল না। যখন আমি ভৈরবে স্কুলে পড়াশোনা করতাম তখন আমাদের হাওরকে তারা ‘উত্তইরা ভুত’ বলে গালাগালি করতো। কিশোরগঞ্জে যখন কলেজে ভর্তি হলাম, তখন অনেকে ‘ভাইট্টা গাবর’ বলে গালাগালি করতো। এই অবস্থার মধ্যে মনে জিদ ছিল, কি করে হাওর উন্নয়ন করা যায়। প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ হাওর এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের বর্ণনা ও এর সুফল প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেন, এখন ঢাকা থেকেও মানুষ বালিখলা, মোহরকোনা বাঁধ, অষ্টগ্রাম ব্রিজ, হাওর দেখতে আসে। হাওরে আসার কথা বললে তারা আগে কইতো, ভাটি যাইতাম? এখন পিকনিক করার জন্য আসে। হাওরের চলমান কাজগুলো সম্পন্ন হলে হাওরের চেহারা সম্পূর্ণ পরিবর্তন হয়ে যাবে। কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য প্রেসিডেন্টপুত্র রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এর সভাপতিত্বে সুধি সমাবেশে বক্তৃতা করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিপি শাহ আজিজুল হক, ইটনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল হোসেন, প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ইসলাম উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা বজলুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর ফারুক প্রমুখ। এ সময় প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চুসহ বিভিন্ন সামরিক, বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

বাজার সম্প্রসারণে জার্মান বিনিয়োগ পেলো ওয়ালটন

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণে বিশ্বের দ্রুত অগ্রসরমান ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ালটনের পাশে দাঁড়াচ্ছে জার্মান বিনিয়োগ এবং ...

ট্রাম্পকে অভিশংসনের দুটি আর্টিকেল অনুমোদন কংগ্রেসে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন প্রক্রিয়ায় দুটি অভিযোগ বা আর্টিকেল অনুমোদন করেছে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের ...

ক্ষমতা না-ও ছাড়তে পারেন মাহাথির মোহাম্মদ

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 ২০২০ সালের পরেও ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। কাতারের রাজধানী দোহা’য় ...

সুদানের ক্ষমতাচ্যুত বশিরের রায় ঘোষণা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

প্রায় ত্রিশ বছর পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের শাসক ওমর আল বশিরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা ...

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল সফরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যের সতর্কতা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে চলমান সহিংস বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে ভ্রমণ সতর্কতা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ...

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনে ঢাকা-দিল্লির ‘স্বর্ণালী’ সম্পর্ক কেঁপে উঠেছে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ‘ট্রাবল-ফ্রি’ বা ঝামেলামুক্ত হিসেবে দেখে ভারত, যেখানে বহুবিধ সমস্যা রয়েছে। এমনকি বলা ...

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে হবে: ঢাবি ভিসি

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন,শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে উদার, অসাম্প্রদায়িক ও ...

বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাগলা কুকুরের মতো ছিল হানাদাররা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাক হানাদার বাহিনীর আচরণ ছিলো পাগলা কুকুরের মতো। রসদ ...

এনআরসি সমস্যা উপমহাদেশে অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে-মির্জা ফখরুল

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের এসআরসি বিল শুধু বাংলাদেশেই নয় পুরো উপমহাদেশে একটা অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে বলে মন্তব্য ...





আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত