আরএসএস প্রধানের নতুন দাবি

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার

নতুন এক দাবি করেছেন ভারতের রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) প্রধান মোহন ভগত। তিনি বলেছেন, হিন্দু সংস্কৃতির কারণে সারা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে সুখী মুসলিম রয়েছেন ভারতে। বিজয়া দশমী উপলক্ষে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, হিন্দু কোনো ধর্ম নয়, কোনো ভাষা নয়, কোনো দেশের নাম নয়। এটা হলো তাদের সবার সংস্কৃতি, যারা বসবাস করেন ভারতে। তিনি আরো যোগ করেন, যখন কোনো জাতি সঠিক পথ থেকে বিচ্যুত হয় তখন তারা সঠিক পথের সন্ধানে আমাদের কাছে আসেন। যখন ইহুদিরা পথ হারিয়ে ফেলেছিল, তখন একমাত্র ভারতই তাদেরকে আশ্রয় দিয়েছে। পারসিরা মুক্তভাবে তাদের ধর্ম চর্চা করতে পেরেছেন শুধু ভারতে।
এ খবর দিয়েছে অনলাইন নিউজ ১৮।

আরএসএস প্রধান আরো বলেন, ভারতে অনেক মানুষ আছেন যারা তাদের হিন্দু পরিচয় দিতে লজ্জিত হন। অনেকে আছেন যারা বলেন, তারা হিন্দু হওয়ার জন্য গর্বিত। এমনও অনেকে আছেন যারা বলেন, তারা হিন্দু। কিন্তু অব্যাহতভাবে হিন্দু শব্দটা উচ্চারণে তারা রাগ দেখান। এমন কিছু মানুষ আছেন যারা তাদের হিন্দু পরিচয় নিয়ে সতর্ক। কারণ, এতে তাদের স্বার্থ নষ্ট হয়। তিনি আরো বলেন, সমাজকে এবং সব ‘সেকশন’কে সংগঠিত করে একত্রিত করার প্রয়োজন। এ লক্ষ্যেই কাজ করছে আরএসএস।

মোহন ভগত বলেন, কারো প্রতি আমাদের ঘৃণা নেই। আমাদেরকে একটি উন্নত সমাজ গড়ে তুলতে হবে, যেন তা পরিবর্তন আনতে পারে এবং পুরো দেশের উন্নয়নে সহায়তা করতে পারে। তিনি আরো বলেন, আরএসএস তার দৃষ্টিভঙ্গিতে দৃঢ় যে ভারত একটি হিন্দু রাষ্ট্র। জাতীয় পরিচয়, আমাদের সবার সামাজিক পরিচয়, দেশের প্রকৃতির পরিচয়ের ভিত্তিতে আরএসএসের দৃষ্টিভঙ্গি ও ঘোষণা পরিষ্কার। তা হলো, সুচিন্তিতভাবে এবং সুদৃঢ়ভাবে ভারত হলো হিন্দুস্তান, হিন্দু রাষ্ট্র। তিনি আরো বলেন, যারা ভারতীয় পরিচয় বহন করেন, যারা ভারতীয় পূর্বসূরিদের উত্তরসূরি, যারা দেশের মঙ্গলের জন্য কাজ করছেন, শান্তিকে সমৃদ্ধ করতে হাতে হাত রেখে যোগ দিয়েছেন, সব বৈচিত্রের প্রতি শ্রদ্ধা রয়েছে ও স্বাগত জানিয়েছেন- সেই সব ভারতীয় হিন্দু।

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর





আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত