ঢাবি জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক মাহমুদ আলম

স্টাফ রিপোর্টার

দেশ বিদেশ ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:২৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক হিসেবে মাহমুদ আলমকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সম্প্রতি সিন্ডিকেটের এক সভায় এই নিয়োগ প্রদান করা হয়। এরআগে উচ্চ পর্যায়ের এক সিলেকশন কমিটি তাকে পরিচালক পদে নিয়োগের সুপারিশ করে। এর মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান সকল কর্মকর্তার মধ্যে দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে তিনি অফিস প্রধানের শূন্য পদের বিপরীতে নিয়োগ পেলেন। উল্লেখ্য, মাহমুদ আলম গত ১২ই নভেম্বর ২০১৮ থেকে জনসংযোগ দপ্তরে ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। প্রসঙ্গত, মাহমুদ আলম ১৯৮৬ সালে জনসংযোগ দপ্তরে রিপোর্টার হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি সিনিয়র রিপোর্টার, সহকারী পরিচালক এবং উপ-পরিচালক পদে পদোন্নতি পান। প্রায় এক দশক ধরে তিনি ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বার্তা’র সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।  তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে ১৯৮২ সালে বিএ (সম্মান) এবং ১৯৮৩ সালে এমএ ডিগ্রি অর্জন করেন।
একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এমএসএস এবং এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি দর্শন বিষয়েও এমএ ডিগ্রি লাভ করেন। মাহমুদ ১৯৭৯ সালে ছাত্রাবস্থায় জাতীয় ইংরেজি দৈনিক ‘দি নিউ নেশন’ পত্রিকায় সাংবাদিকতা শুরু করেন। ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত তিনি এ পত্রিকায় স্টাফ রিপোর্টার, সাব-এডিটর, শিফ্‌ট ইন-চার্জ এবং ক্যাম্পাস পেইজ এডিটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া, তিনি ইংরেজি দৈনিক ‘দি ইন্ডিপেনডেন্ট’ ও ‘দি বাংলাদেশ অবজারভার’-এ রিপোর্টিং সেকশনে প্রায় ১২ বছর যাবৎ সাংবাদিকতা করেন।  মাহমুদ আলম যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ফ্রান্স, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, জাপান,  জার্মানী, নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়াম, স্পেন, বুলগেরিয়া, চীন, তুরস্ক, সৌদি আরব, দক্ষিণ কোরিয়া, ফিলিপাইন, হংকং, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সফর করেন। তিনি ১৯৬২ সালে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার উত্তর সুবিদখালী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সুবিদখালী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রয়াত শিক্ষক মোতাহার উদ্দিন এবং প্রয়াত আনোয়ারা বেগমের দ্বিতীয় পুত্র।

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

বাজার সম্প্রসারণে জার্মান বিনিয়োগ পেলো ওয়ালটন

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণে বিশ্বের দ্রুত অগ্রসরমান ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ালটনের পাশে দাঁড়াচ্ছে জার্মান বিনিয়োগ এবং ...

ট্রাম্পকে অভিশংসনের দুটি আর্টিকেল অনুমোদন কংগ্রেসে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন প্রক্রিয়ায় দুটি অভিযোগ বা আর্টিকেল অনুমোদন করেছে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের ...

ক্ষমতা না-ও ছাড়তে পারেন মাহাথির মোহাম্মদ

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 ২০২০ সালের পরেও ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। কাতারের রাজধানী দোহা’য় ...

সুদানের ক্ষমতাচ্যুত বশিরের রায় ঘোষণা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

প্রায় ত্রিশ বছর পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের শাসক ওমর আল বশিরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা ...

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল সফরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যের সতর্কতা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে চলমান সহিংস বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে ভ্রমণ সতর্কতা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ...

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনে ঢাকা-দিল্লির ‘স্বর্ণালী’ সম্পর্ক কেঁপে উঠেছে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ‘ট্রাবল-ফ্রি’ বা ঝামেলামুক্ত হিসেবে দেখে ভারত, যেখানে বহুবিধ সমস্যা রয়েছে। এমনকি বলা ...

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে হবে: ঢাবি ভিসি

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন,শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে উদার, অসাম্প্রদায়িক ও ...

বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাগলা কুকুরের মতো ছিল হানাদাররা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাক হানাদার বাহিনীর আচরণ ছিলো পাগলা কুকুরের মতো। রসদ ...

এনআরসি সমস্যা উপমহাদেশে অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে-মির্জা ফখরুল

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের এসআরসি বিল শুধু বাংলাদেশেই নয় পুরো উপমহাদেশে একটা অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে বলে মন্তব্য ...





পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ahammad

২০১৯-১২-১৪ ১২:১৮:৪৬

জনাব,জুয়েল সাহেব জনগনের শেষ বিশ্বাসের জায়গা সশস্রবাহিনী। দয়া বির্তকসৃষ্টির সুযোগ করে দিবেন না। কথায় বলে ঠকুরঘরে কেরে,আমি কলা খাই নাই।

আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত