মুখ-দল না দেখে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চালানোর আহ্বান জাসদের

স্টাফ রিপোর্টার

দেশ বিদেশ ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার

দুর্নীতিবাজরা দলের কলঙ্ক। দুর্নীতিবাজদের গায়ে যে জার্সিই থাকুক না কেন তাদের কঠোরভাবে দমন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছে সাবেক তথ্যমন্ত্রী ও  জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। গতকাল বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে ‘সুশাসনের জন্য রাজনৈতিক চুক্তি বিষয়ে জাসদের প্রস্তাব ও দুর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযানের সমর্থনে এবং সমসাময়িক বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন তিনি এ কথা বলেন। জাসদ সভাপতি বলেন, চিহ্নিত অপরাধী, অসৎ রাজনৈতিক নেতৃত্ব, পুলিশ-প্রশাসনের অসৎ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ত্রিমুখী শুদ্ধি অভিযান চালাতে হবে। সুশাসনের জন্য আন্দোলন ও শুদ্ধি অভিযানের টার্গেটই হবে অপরাধী সিন্ডিকেট  ভেঙ্গে দেয়া। এর আগে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার বলেন, আপনারা জানেন জনগণের সমর্থনে ও সরকারের বলিষ্ঠ পদক্ষেপে দেশে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস-সহিংসতা-অরাতর্ঘাত-নাশকতা-আগুনসন্ত্রাস-অশান্তির রাজনীতি কোণঠাসা হয়েছে।দেশ শান্তি-স্থিতিশীলতা-উন্নয়ন-উৎপাদনের পথে অনেক এগিয়ে গিয়েছে। কিন্তু দেশ ও জাতির অর্জিত এ অগ্রগতি-অগ্রযাত্রার সাফল্য ধ্বংস করতে উদ্যত হয়েছে দুর্নীতিবাজ-লুটেরা-ক্ষমতার অপব্যবহারকারী  গোষ্ঠি। দেশে দুর্নীতি-লুটপাট-দলবাজি-দখলবাজি-ক্ষমতার অপব্যবহার, গুন্ডামি, অত্যাচার, নির্যাতন, নারী ও শিশু নির্যাতন, ধর্ষণসহ সামাজিক অনাচার-অবিচার আশংকাজনকভাবে বৃদ্ধি  পেয়েছে।

তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য  যে বহুক্ষেত্রেই এই চিহ্নিত অপরাধীদের সাথে অসৎ রাজনৈতিক অসৎ ও পুলিশ-প্রশাসনের অসৎ কর্মকর্তাদের অশুভ  যোগসাজশে অপরাধী সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে।
ক্যাসিনো ঘটনার সূত্র ধরে অপরাধী সিন্ডিকেটের কাজ-কারবারের সামান্য কিছুটা জনসম্মুখে প্রকাশিত হয়েছে। এই অপরাধী সিন্ডিকেট সরকারের গায়ে কালিমালিপ্ত করছে, সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে  ফেলছে।

 দেশের সাধারণ মানুষ পুলিশের কাছে সেবার পরিবর্তে হয়রানি ও বৈষম্যের শিকার হচ্ছে দাবি করে শিরিন আখতার বলেন, লুটপাট ও দুর্নীতির পাশাপাশি  দেশের সাধারণ জনগণ সরকারি অফিস-আদালতে, হাসপাতালে তাদের স্বীকৃত নাগরিক অধিকার ও নাগরিক সেবা পাবার বদলে অপমান-অসম্মান-হয়রানির শিকার হচ্ছে। অপরাধের শিকার সাধারণ মানুষ পুলশ ও প্রশাসনের কাছে ন্যায়বিচার ও  পাবার পরিবর্তে অপমান, অসম্মান, হয়রানি, বৈষম্য, বঞ্চনার শিকার হচ্ছে। সাধারণ মানুষ অসহায়-বিপন্ন বোধ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়সহ শিক্ষাঙ্গনগুলোতেও রাজনৈতিক মদতপুষ্ট হয়ে প্রশাসনিক আশ্রয়-প্রশ্রয়ে অত্যাচারী ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী গড়ে উঠেছে। এদের অত্যাচার-নির্যাতনে বিশ্ববিদ্যালয়সহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের হল হোস্টেলে ভীতি ও আতংকের রাজত্ব কায়েম হয়েছে। বুয়েটে  পৈশাচিকভাবে আবরার হত্যা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভীতি-আতংকের  পরিস্থিতি উন্মোচন করেছে। অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিসহ প্রশাসন চরমভাবে দুর্নীতিগ্রস্থ হয়ে পড়েছে। দুর্নীতি-লুটপাট বন্ধ করে সুশাসন নিশ্চিত করতে  বেশকিছু পরামর্শ তুলে ধরা হয় জাসদের পক্ষ থেকে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জাসদের কার্যকরী সভাপতি রবিউল আলম, স্থায়ী কমিটির সদস্য হাবিবুর রহমান শওকত, নুরুল আখতার, সহ-সভাপতি আফরোজা হক রীনা, ফজলুর রহমান বাবুল, সফি উদ্দিন  মোল্লা শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নইমুল আহসান জুয়েল, শওকত রায়হান ।

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

বাজার সম্প্রসারণে জার্মান বিনিয়োগ পেলো ওয়ালটন

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণে বিশ্বের দ্রুত অগ্রসরমান ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ালটনের পাশে দাঁড়াচ্ছে জার্মান বিনিয়োগ এবং ...

ট্রাম্পকে অভিশংসনের দুটি আর্টিকেল অনুমোদন কংগ্রেসে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন প্রক্রিয়ায় দুটি অভিযোগ বা আর্টিকেল অনুমোদন করেছে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের ...

ক্ষমতা না-ও ছাড়তে পারেন মাহাথির মোহাম্মদ

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 ২০২০ সালের পরেও ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। কাতারের রাজধানী দোহা’য় ...

সুদানের ক্ষমতাচ্যুত বশিরের রায় ঘোষণা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

প্রায় ত্রিশ বছর পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের শাসক ওমর আল বশিরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা ...

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল সফরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যের সতর্কতা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে চলমান সহিংস বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে ভ্রমণ সতর্কতা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ...

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনে ঢাকা-দিল্লির ‘স্বর্ণালী’ সম্পর্ক কেঁপে উঠেছে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ‘ট্রাবল-ফ্রি’ বা ঝামেলামুক্ত হিসেবে দেখে ভারত, যেখানে বহুবিধ সমস্যা রয়েছে। এমনকি বলা ...

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে হবে: ঢাবি ভিসি

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন,শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে উদার, অসাম্প্রদায়িক ও ...

বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাগলা কুকুরের মতো ছিল হানাদাররা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের শেষ ৩ দিন পাক হানাদার বাহিনীর আচরণ ছিলো পাগলা কুকুরের মতো। রসদ ...

এনআরসি সমস্যা উপমহাদেশে অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে-মির্জা ফখরুল

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের এসআরসি বিল শুধু বাংলাদেশেই নয় পুরো উপমহাদেশে একটা অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করবে বলে মন্তব্য ...





পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ahammad

২০১৯-১২-১৪ ১২:১৮:৪৬

জনাব,জুয়েল সাহেব জনগনের শেষ বিশ্বাসের জায়গা সশস্রবাহিনী। দয়া বির্তকসৃষ্টির সুযোগ করে দিবেন না। কথায় বলে ঠকুরঘরে কেরে,আমি কলা খাই নাই।

আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত