আবরার হত্যা

নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের

প্রথম পাতা

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৫
ফেসবুকে মন্তব্যের জেরে ছাত্রলীগ কর্মীদের নির্মম নির্যাতনে প্রাণ হারানো বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের ঘটনার সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেখতে চায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। জাতিসংঘের এক বিবৃতি ভয়ানক ওই হত্যাকান্ডের নিন্দা জানিয়ে বলা হয়েছে- মত প্রকাশের স্বাধীনতা একটি মৌলিক অধিকার। এর চর্চার জন্য কাউকে হয়রানি, নির্যাতন ও হত্যা অগ্রহণযোগ্য। ওই বিশ্ব সংস্থার ঢাকাস্থ আবাসিক সমন্বয়কারী দপ্তর প্রচারিত বিবৃতিতে সন্দেহভাজন হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারে কর্তৃপক্ষের নেয়া উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে।

বলা হয়েছে স্বাধীন তদন্তই ‘সুষ্ঠু প্রক্রিয়ায় বিচার’ ও ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত করবে। জাতিসংঘের বিবৃতিতে বলা হয়, কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশে ক্যাম্পাস কেন্দ্রীক সহিংসতা বেড়ে গেছে। এতে অনেকে প্রাণ হারিয়েছে। কিন্তু এসব ঘটনায় দায়ীদের দৃশ্যত ‘দায়মুক্তি’ দেয়া হয়েছে।
এদিকে বিবৃতি প্রচারের কাছাকাছি সময়ে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো বুয়েটের ঘটনাকে ‘ভয়ানক’ উল্লেখ করে তিনি এ ঘটনার পূনরাবৃত্তি রোধে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার আহ্বান জানান। ঘটনাটিকে উদ্বেগজনক আখ্যায়িত করে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া দুই সন্তানের জননী মিয়া সেপ্পো বলেন, এমন ঘটনা আমাকে ব্যথিত করেছে। তিনি আতঙ্কিতও। রাজধানীর ইস্কাটনস্থ বিআইআইএসএস মিলনায়তনে কূটনৈতিক রিপোর্টারদের সংগঠন ডিকাবের ফ্ল্যাগশিপ প্রোগ্রাম ‘ডিক্যাব টক’-এ জাতিসংঘ দূত কথা বলছিলেন। সেখানে তিনি আরও বলেন, ক্যাম্পাস অবশ্যই নিরাপদ হওয়া উচিত।

বৃটেন হতবাক-বিস্মিত: এদিকে বুয়েট শিক্ষার্থী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিজেদের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে এক বার্তায় ঢাকার বৃটিশ হাইকমিশন শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে। বার্তায় বলা হয়, বুয়েটের ঘটনায় বৃটেন হতবাক-বিস্মিত এবং দুঃখিত। বৃটেন নিরবচ্ছিন্নভাবে বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মানবাধিকার এবং আইনের শাসনের পক্ষে।

জার্মানী কখনও মত প্রকাশে বাধাকে ‘শাস্তিবিহীন’ রাখে না: এদিকে ঢাকাস্থ জার্মান দূতাবাসের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে পৃথক বিবৃতিতে বলা হয়েছে- দূতাবাস অত্যন্ত দু:খের সঙ্গে নিহত বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরারের ঘটনাটি নোটে নিয়েছে। আবরার নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার। বিবৃতিতে বলা হয়- মত প্রকাশের স্বাধীনতা গণতন্ত্রের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মূল্যবোধ। এটি বাকস্বাধীনতার স্বতন্ত্র অধিকার এবং মতামতের স্বাধীনতার পাশাপাশি সেই মতামত জনসমক্ষে প্রকাশের অধিকারের নিশ্চয়তা দেয়। জার্মান সরকার নিজ দেশে এবং বিশ্বব্যাপী সেই অধিকারের প্রতি সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। জার্মানী কখনও এই নীতিগুলির কোনও লঙ্ঘনকে শাস্তিবিহীন অবস্থায় রাখে না, বরং সব সময় সেই মূল্যবোধকে সমুন্নত রাখে। মত প্রকাশের জন্য খুন হওয়া আবরারের পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছে দূতাবাস। বিবৃতিতে জার্মানী গণতন্ত্রের মূলধারার গুরুত্ব অনুধাবন এবং এটি সমুন্নত রাখতে সবার প্রতি আহ্বান জানায়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

৮৮ পাউন্ডের লুলুলেমন, নির্মাতারা নির্যাতিত

সম্রাটের মুখে কুশীলবদের নাম

বাংলাদেশের ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে ফিফা প্রেসিডেন্ট

ফরিদপুরে মানবজমিন উধাও

সীমান্তে গোলাগুলি বিএসএফ সদস্যের নিহতের খবর ভারতীয় মিডিয়ায়

৩৬০০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করবে সৌদি কোম্পানি

গ্রামীণফোন-রবিতে প্রশাসক নিয়োগে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন

বালিশকাণ্ডের তদন্তে দুদক

ব্রেক্সিট নিয়ে বৃটেন ইইউ সমঝোতা

মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েও নিরাপত্তাহীনতায়

ভুলে আসামি, ১৮ বছর পর খালাস পেলেন নাটোরের বাবলু শেখ

গ্রামীণফোনের কাছ থেকে ১২৫৮০ কোটি টাকা আদায়ের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

‘ফিরোজের কাছে ফিরে আসবো’

শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই আবরার হত্যার পর দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে

পদযাত্রায় বাধা, আমরণ অনশনে নন-এমপিও শিক্ষকরা