আনু মোহাম্মদের প্রশ্ন

সেই বিবৃতির পর কিভাবে তাদের কাছ থেকে শিক্ষকের ভূমিকা আশা করতে পারি

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ৯ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৮:২১
একাদশ নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে দাবি করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা যে বিবৃতি দিয়েছিলেন তার সমালোচনা করে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, এমন বিবৃতি দেয়ার পর তাদের কাছ থেকে কিভাবে শিক্ষকের ভূমিকা আশা করা যায়। বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় বুধবার ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিপীড়নবিরোধী অভিভাবক, শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কিংবা সাধারণভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ভূমিকা নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। চিন্তা করেন ২৯শে ডিসেম্বরের রাতে যে নির্বাচন হয়েছে, যে নির্বাচনে কোনো ভোট ছিল না। যে নির্বাচন রাতে হয়েছে। সেই নির্বাচনের পরে কোনো আত্মসম্মানবোধ সম্পন্ন লোক কি বলতে পারে-এই নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে? সেই নির্বাচন নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহস্রাধিক শিক্ষক বিবৃতি দিয়ে বলেছেন নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। তারপর আমরা কী করে একজন শিক্ষকের ভূমিকা তাদের কাছ থেকে আশা করতে পারি। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে যখন আবরার নিহত হয়েছে, তার আগে আবরারের মতো অসংখ্য ঘটনা আছে।
এবং সেই অসংখ্য ঘটনা ঘটেছে হলের প্রভোস্ট, হলের হাউস টিউটর এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির কারণে। আনু মুহাম্মদ বলেন, আজ যদি আইন আদালত ঠিক থাকতো, কাজ করতো তাহলে আবরার হত্যাকা-ের তালিকায় ওই প্রভোস্ট, ভিসির নামও থাকতো। কারণ তারা দায়িত্বে অবহেলা করেছেন। সমাবেশে বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

SM Rafiqul Islam

২০১৯-১০-১০ ০৩:১৩:০১

All the VC of Public Universities are Corrupted ,inefficient & mentally ill.Most of the Teachers are corrupted & inefficient.They shoul be dismissed from service immediately.The rule of law should be established.

Md. Harun al Rashid

২০১৯-১০-০৯ ০৮:১৮:১০

Sir, if entry is defective then everything would surely be defective.Credible, free and fair election is said to be a legitimate entry.

আপনার মতামত দিন

জবি ভিসি পদে থাকার গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছেন

রাজশাহীতে গ্যাংকালচার চক্রের মূলহোতা গ্রেপ্তার

জলবায়ু বিষয়ক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশের এক কোটি ৯০ লাখ শিশু

সিরাজগঞ্জে ট্যাংকলরী চাপায় ২ ব্যবসায়ী নিহত

লক্ষ্মীপুরে কিশোরীকে আটকিয়ে গণধর্ষণ, আটক ২

ফেসবুকের বিরুদ্ধে মামলা করব?

আকাশের চিকিৎসা কি বন্ধ হয়ে যাবে?

নীলম উপত্যকায় কূটনীতিকদের নিয়ে গেছে পাকিস্তান

ভোলার সেই বিপ্লবের ভগ্নিপতিকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

দেখে শুনে রাস্তা পার হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট দেখার আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন হাসিনা, আশাবাদী সৌরভ

এবার শামীমাকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাবেক স্বামীর ছোঁড়া এসিডে ঝলসে গেলো ফাতেমা ও তার মেয়ে

ছেলের হাতে শিক্ষক বাবা খুন

ভোলার এসপির ফেসবুক আইডি হ্যাকড, থানায় জিডি

মাগুরায় ছাত্রী হোস্টেলে ঢুকে ছাত্রলীগের নিপীড়ন