আজ থেকে খোলাবাজারে পিয়াজ বিক্রি

দেশ বিদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩০
আজ মঙ্গলবার থেকে খোলাবাজারে পিয়াজ বিক্রি করবে সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। প্রাথমিকভাবে ঢাকার ৫টি জায়গায় ট্রাকে করে পিয়াজ বিক্রি শুরু হবে। পরে ক্রমান্বয়ে তা বাড়ানো হবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে রোববার পিয়াজের মূল্য পরিস্থিতি নিয়ে এক সভায় টিসিবির মাধ্যমে বিক্রির সিদ্ধান্ত হয়। ভারত পিয়াজের ন্যূনতম রপ্তানি মূল্য ৮৫০ ডলার নির্ধারণের পর দেশের বাজারে পিয়াজের দাম কেজিপ্রতি ১০ থেকে ১৫ টাকা বেড়ে গেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বৈঠকে বসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ওই বৈঠকে পিয়াজ আমদানির ঋণপত্রের শর্ত শিথিল ও সুদের হার কমানোর জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি দেয়ার কথা জানানো হয়। পাশাপাশি আমদানি ও পরিবহন নির্বিঘ্ন করতেও সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।
এদিকে, আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পিয়াজের দাম নিয়ে আরেকটি বৈঠকের আয়োজন করেছে। টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির বলেন, আমাদের পিয়াজ কেনা চূড়ান্ত। আজ বিক্রি শুরু হবে। ৫টি জায়গার মধ্যে তিনটি চূড়ান্ত হয়েছে। তবে দাম এখনো ঠিক হয়নি। তিনি জানান, ৫টি জায়গার মধ্যে ঢাকার প্রেসক্লাব, মতিঝিলের বকচত্বর এবং খামারবাড়ি/মোহাম্মদপুর চূড়ান্ত হয়েছে। বাকি দুটি চূড়ান্ত হয়নি।
এদিকে, ঢাকার পাইকারি বাজারে পিয়াজের দাম কিছুটা কমেছে।
পুরান ঢাকার শ্যামবাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, কেজিপ্রতি ৫ টাকা কমে দেশি পিয়াজ ৫৩-৫৪ টাকা ও ভারতীয় পিয়াজ ৫০-৫২ টাকায় নেমেছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সীমিত বলেই নৃশংস ঘটনা ঘটছে

যুবলীগের নেতৃত্ব নিয়ে নানা আলোচনা

যুবলীগের দায়িত্ব পেলে ভিসি পদ ছেড়ে দেবো

বিজিবি-বিএসএফ ভুল বোঝাবুঝি আলোচনায় শেষ হবে

আন্ডার ওয়ার্ল্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য সম্রাটের মুখে

শেয়ারবাজার টালমাটাল

ম্যানচেস্টারে বিমানের অফিস নিয়ে প্রশ্ন

পিয়াজের দাম কমবে কবে?

শিশু নির্যাতনকারীর ক্ষমা নেই

জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামুন: বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

ঐক্যের ডাক গ্রামে গ্রামে ছড়িয়ে দিতে হবে

বাংলাদেশে পাবজি গেম বন্ধ

ভারতের সব রাজ্যে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হচ্ছে

জমি দখল করাই তাদের কাজ

ফেনী নদীর পানিচুক্তি নিয়ে হাইকোর্টে রিট

নতুন ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে পার্লামেন্টে কঠিন লড়াইয়ের মুখে জনসন