লাল বাহাদুর’র দাম হাঁকছেন ১২ লাখ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে | ১১ আগস্ট ২০১৯, রোববার
গরুটির নাম লাল বাহাদুর। বাজারে এসে দাম উঠেছে ১০ লাখ টাকা। বেশি দামের আশায় গরুটি ছাড়ছেন না মালিক। তবে মনের মতো দাম না পেলে এ বছর আর বেচবেন না। আগামী ঈদে হাটে তুলবেন। তবে আশা করছেন এবার বিক্রি করতে পারবেন। মৌলভীবাজার সাইফুর রহমান স্টেডিয়াম মাঠের কোরবানির পশুর হাটে গরুটি উঠেছে। নিয়ে এসেছেন সদর উপজেলার শাহবন্দর এলাকার শাহেল আহমদ খোকন। তিনি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিকভাবেই গরুটি লালন পালন করেছেন। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখেই এই গরুটি যত্ন সহকারে লালন-পালন করেছেন। এখন মূল্য হাঁকা হচ্ছে ১২ লাখ টাকা। ওজনে ১৫ মণ। শাহেল আহমদ খোকন জানান, ঈদকে সামনে রেখে অনেক ক্রেতাই এসেছেন। দেখে দরদাম করছেন। ফার্মের সর্বোচ্চ গরুটির নাম লাল বাহাদুর। যার মূল্য হাঁকা হচ্ছে ১২ লাখ টাকা। গরুটির খাদ্যের তালিকায় রয়েছে উন্নত জাতের ঘাস, খৈল, ভুট্টা, গম, চাউলের গুড়া ও ভূষি। দুই বছরেই তিনি গরুটিকে ১৫ মণ ওজনের করেছেন। তিনি বলেন গরুটির দাম চাচ্ছেন ১২ লাখ টাকা। তবে কম বেশি করে একটা ন্যায্য দাম পেলেই বিক্রি করে দিবেন। লাল বাহাদুরকে দেখতে ক্রেতারা ভিড় করছেন। বাজারে আসা ক্রেতা নজরুল ইসলাম, শফিক আহমদ ও সায়েম মিয়া বলেন, গরুটি দেখে তারা মুগ্ধ। দেখতে খুবই সুন্দর। রং লাল। তবে দাম একটু বেশি বলে জানান। এ বছর মৌলভীবাজার শহরের বাজারে অন্য বছরের চাইতে ক্রেতা বিক্রেতার ভিড় কম। প্রথম দিকে ক্রেতা বিক্রেতা একেবারেই কম হলেও শেষের দিকে কিছুটা বেড়েছে। এ বছর নানা কারণে প্রবাসীরা দেশে না আসায় এর প্রভাব পড়েছে কোরবানির পশুর হাটেও।  





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সাফে দুর্দান্ত শুরু বাংলাদেশের

ভয়ঙ্কর অপহরণকারী চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

সকল এমপিকে মশা নিধনে যুক্ত করার আহবান

ছুটির দিনে রাজধানীতে দুর্ঘটনায় ঝরলো দুই প্রাণ

নিখোঁজের ৭ দিন পর নয়নের লাশ উদ্ধার

মোহাম্মদপুরে ছাদ থেকে পড়ে এক ব্যক্তি নিহত

রেলস্টেশনের পাগলী এখন তারকা শিল্পী (ভিডিও)

কাশ্মীর ইস্যু: ভারত-পাকিস্তানকে সহায়তা করতে প্রস্তুত ট্রাম্প

ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময়

ডেঙ্গু কেড়ে নিলো গৃহবধূসহ ৩ জনের প্রাণ

টেকনাফে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

সাতক্ষীরায় ‘মাদক ব্যবসায়ী’র গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

বাংলাদেশী কিশোরীর অন্ধকার জীবন

‘লুকিয়ে সিনেমা হলে ঢুকেছিলাম’

রাজি নয় রোহিঙ্গারা শুরু হলো না প্রত্যাবাসন

তিন বিচারপতির বিরুদ্ধে তদন্ত