নন্দীগ্রামে বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন ইউএনও

বাংলারজমিন

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি | ১০ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
 বগুড়ার নন্দীগ্রামে পৌরসভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেলো আমিনা খাতুন (১৫) নামের স্কুলছাত্রী। বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বেলঘরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আমিনা খাতুন ওই গ্রামের আমিনুল ইসলামের মেয়ে ও কাজী আবদুল ওয়াজেদ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আমিনা খাতুনের বিয়ে একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে সাকিব হোসেন (১৫) সঙ্গে ঠিক করেন তার পরিবারের লোকজন। বৃহস্পতিবার রাতে এ বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সে উপলক্ষে কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল। সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছা. শারমিন আখতার পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে হাজির হন। তারা সেখানে গিয়ে কনের বাবা-মা এবং পরিবারের সকলকে বিয়ের কুফল সম্পর্কে অবহিত করলে ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তারা মেয়ের বিয়ে দিবে না বলে মুচলেকা দেন। এদিকে বিয়ের বাড়িতে ইউএনওর উপস্থিতির খবর পেয়ে বর পক্ষের লোকজন পথিমধ্য থেকে ফিরে যান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রত্যাবাসন চেষ্টা ব্যর্থতার জন্য বাংলাদেশকেই দুষছে মিয়ানমার

মোজাফফর আহমদ আর নেই

বিরোধী নেতার পদ নিয়ে জাপায় চাপান-উতোর

পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে ভারতকে ফ্রান্সের চাপ

তবুও ভালো নেই পুঁজিবাজার

ছাত্রদলের কাউন্সিল বেড়েছে তৃণমূলের কদর

রাঙ্গামাটিতে সেনা বাহিনীর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত

রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবলীগ নেতা নিহত, বিক্ষোভ, ভাঙচুর

ডেঙ্গু নিয়ে এপর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি ৬১,০০০

একই পরিবারের সবাই ডেঙ্গু রোগী

ভারত-পাকিস্তানকে সহায়তা করতে প্রস্তুত ট্রাম্প

মর্গ ব্যবস্থাপনা নিয়ে প্রশ্ন

খেলাপি ঋণের নতুন রেকর্ড

হঠাৎ বেড়েছে পিয়াজের দাম, স্বস্তি নেই সবজিতেও

সিলেটে কিং রতনের ‘ইয়াবাকন্যা’ নূপুর গ্রেপ্তার

বিএসএফের গুলিতে সাতক্ষীরা সীমান্তে ৫ বাংলাদেশি আহত