ক্ষোভে আগুন জ্বলতে পারে কাশ্মীরে, এক রাতে গ্রেপ্তার ৫৬০

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৩
স্বায়ত্তশাসন বাতিল করার পর ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ব্যাপক হারে দমনপীড়ন চলছে। এরই মধ্যে সেখান থেকে এক রাতে কমপক্ষে ৫৬০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লাহ সহ অনেক রাজনীতিক। বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন। তারা বলেছেন, যখনই কাশ্মীর থেকে কারফিউ ও বিধিনিষেধ তুলে নেয়া হবে বা শিথিল করা হবে, তখনই ভারত সরকারের একতরফা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভের আগুন জ্বলতে পারে এই উপত্যকায়। আগামী সোমবার মুসলিমদের ত্যাগের উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। এ সময়ে কারফিউ ও বিধিনিষেধ শিথিল করা হতে পারে। এই সুযোগেই সেই ক্ষোভের আগুন জ্বলে উঠতে পারে। ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লি থেকে বৃহস্পতিবার এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। এতে ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআই এবং ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে উদ্ধৃত করা হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে শ্রীনগর, বরমুল্লা ও গারেজ শহরে ঘেরাও অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কমপক্ষে ৫৬০ জনকে। রাজনীতিক ছাড়াও এর মধ্যে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর, ব্যবসায়ী নেতা ও অধিকার কর্মীরা। তাদেরকে অস্থায়ী বন্দিশিবিরে রাখা হয়েছে।
 
বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশে রেডিওতে ভাষণ দেয়ার কথা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। এই ভাষণে কেন তার হিন্দু জাতীয়তাবাদী সরকার সাত দশক ধরে চলমান কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা ব্যাখ্যা করবেন। তার এই ভাষণের আগেই ওই গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা করা হয়। রাজ্যজুড়ে কারফিউ বহাল রয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে হাজার হাজার সেনা সদস্য। জম্মু কাশ্মীরে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ইন্টারনেট, মোবাইল ফোন সেবা, রাস্তায় সীমিত আকারে মানুষ চলাচল করতে দেয়া হচ্ছে। এর ফলে সেখানকার রাস্তাঘাট ফাঁকা। অথচ ছবির মতো এই উপত্যকা পর্যটকে উপচে পড়ে সাধারণ সময়।

বুধবার দিনের শেষে ভারতের বেসামরিক বিমান চলাচল বিষয়ক এজেন্সি দেশজুড়ে বিমানবন্দরগুলোকে নিরাপত্তা বৃদ্ধির পরমার্শ দিয়েছে। কাশ্মীর ইস্যুতে সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে বলে জানতে পেরেছে বেসামরিক নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা। কাশ্মীর পরিস্থিতি পারমাণবিক শক্তিধর প্রতিবেশী পাকিস্তানে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। বুধবার তারা নয়া দিল্লির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক খর্ব করেছে। তারা পাকিস্তানে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার অজয় বিসারিয়াকে বহিষ্কার করেছে। এর জবাবে ভারত সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তানের প্রতি। ওদিকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে এসব বিষয় তুলে ধরেছেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মালিকা লোদি। এখানে উল্লেখ্য, কাশ্মীরের দাবিদার পাকিস্তানও। তারা ভারতের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে এ ইস্যুতে। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে দুটি যুদ্ধ হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

smmozibur binkalam

২০১৯-০৮-০৮ ১৬:২২:৩৪

ভারত সরকারের উচিৎ জবাব দিতে। সমস্ত জম্মুকাশ্মির ও লাখদ বাসির এক ঐতিহাসিক ঐক্যর ডাক দেয়া। আর স্বাধীনতা সংগ্রামের ঘোষনা দিয়ে ভারতের কাছ থেকে স্বাধীনতা ছিনিয়ে নেয়া। এখনই উপযুক্ত সময়।

আপনার মতামত দিন

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই

ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরম গ্রেপ্তার

বিএনপি-জামায়াতের পৃষ্ঠপোষকতায় ২১শে আগস্ট হামলা

পরিচ্ছন্নতা অভিযানের পরের দিন আগের চিত্র

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ

কাশ্মীরের যে এলাকা এখনো মুক্ত

সর্ষের মধ্যে ভূত থাকতে নেই: হাইকোর্ট

ফেসবুক গ্রুপ ‘গার্লস প্রায়োরিটি’র অ্যাডমিন কারাগারে

বিতর্ক দমাতে ফুটেজ চান মেয়র আরিফ

ঢাকা-দিল্লি সম্পর্ক ইতিবাচক পথেই রয়েছে: জয়শঙ্কর

কে হচ্ছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও মুখ্য সচিব

তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির জন্য আপিল করা হবে

ডেঙ্গু পরিস্থিতি: রোগী কমে-বাড়ে ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি ১৬২৬

এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় দুই সিটিতে ৩৯০০০০ টাকা জরিমানা

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে নতুন করে অস্থিরতা নিহত ১৯

৫ বছরে আমানত ৫ হাজার কোটি টাকা