রাঙামাটিতে জেএসএস’র দু’গ্রুপের গুলিবিনিময়, সংস্কারপন্থী নেতা নিখোঁজ

অনলাইন

রাঙামাটি প্রতিনিধি | ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৩:৪৬ | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৪৬
পাহাড়ের আঞ্চলিক দুই সংগঠনের মধ্যে গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ জেএসএস এমএন লামরাগ্র“পের এক নেতা কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টার সময় রাঙামাটির সুবলং ইউনিয়নের কাচালং দোর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস ও তাদের অন্যতম প্রধান শত্র“ সংস্কারপন্থী জেএসএস এর মধ্যে এই গোলাগুলির ঘটনা সংগঠিত হয়। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে কোকো চাকমা নামে সংস্থারপন্থীদলের এক ব্যক্তি  কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে যান। সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা গ্রপের নেতা কোকো চাকমা নিজে সুবলংয়ে সহকারী সংগঠকের দায়িত্বে ছিলেন এবং তিনি জেএসএস এমএন লারমা গ্র“পের প্রধান নেতা পেলে বাবুর আপন ভাতিজা বলে জানিয়েছে দলটির দায়িত্বশীল সূত্র। তার বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলাধীন কামুক্যাছড়া এলাকায়।

কোকো চাকমা সুবলং এলাকায় জেএসএস এমএন লারমা দলের সহকারি সংগঠক বলে জানিয়েছে দলটির একাধিক সূত্র। বরকল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মফজল আহমেদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত।


স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি থেকে ইট বোঝাই ২টি ট্রলার বোট নিয়ে লংগদুর উদ্দেশ্য সুবলং বাজার ক্রস করছিলো। এ সময় চাঁদার জন্য সুবলং বাজারের মাজারের ঘাটে ভিড়ানোর লক্ষ্যে বোটগুলিকে সিগন্যাল দেয় জেএসএস এমএন লারমার সংস্কারপন্থীর কর্মীরা। কিন্তু মাল বোঝাই বোটগুলো ঘাটে না ভিড়িয়ে চলে যাচ্ছিলো। এ সময় জেএসএস সংস্কারপন্থীরা তাদের কাছে থাকা ষ্পীড বোট নিয়ে ওই মালামাল বোঝাই দুটি বোট কে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ওই দু’টি ট্রলার বোটকে লক্ষ্য করে গুলি করে সংস্কারপন্থীরা। এসময় গুলি করতে করতে নিজেদের নিয়ন্ত্রিত এলাকার সীমানা ত্যাগ করে প্রতিপক্ষের সীমানায় চলে এলে আমবাগান নামক এলাকায় ওৎপেতে থাকা জেএসএস এর মুল দলের সশস্ত্রকর্মীরা সংস্কারপন্থীদের দেখেই ব্যাপকহারে গুলি চালাতে থাকে। এ সময় সংস্থারপন্থীরাও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে এমএন লারমার সংস্কারপন্থীদের ষ্পীড বোটের ড্রাইভার কোকো চাকমা (২৮) গুলিবিদ্ধ হয়ে পানিতে পড়ে যান বলে সংবাদ মাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বরকল থানার ওসি মফজল আহম্মদ খান জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ৫০ রাউন্ডের অধিক গুলি বিনিময় হয়েছে। নিখোঁজ কোকো সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের প্রধান নেতা পেলে বাবুর আপন ভাতিজা এবং তিনি সুবলংয়ে দলটির সহকারী সংগঠকের দায়িত্বে ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছে দলটির দায়িত্বশীল সূত্র। তার বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলাধীন কামুক্যাছড়া এলাকায়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ঢাবির উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন ৩১ জুলাই

এবার গ্রেপ্তার রিশান ফরাজী

প্রতি ইঞ্চি জমি থেকে অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে বের করব: অমিত শাহ

যমুনায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত, সিরাজগঞ্জে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত

আসামে বন্যায় মৃত ২৭, বিপদসীমার ওপরে ব্রহ্মপুত্র ও শাখা নদী

সিরাজগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু

মাত্র তিন মাস বাড়লো তসলিমা নাসরিনের ভিসার মেয়াদ

৮ দিন ধরে ঘরের চালে নুর বানু (ভিডিও)

কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ পুনর্বিবেচনা করতে পাকিস্তানকে আইসিসির নির্দেশ

বন্যার পানি ভাসিয়ে নিলো নবদম্পতির সংসার (ভিডিও)

অভিবাসী ছিলেন ট্রাম্পের দাদা, ঠাঁই পাননি নিজদেশে

বাবার পর এবার মিললো ছেলের লাশ

প্রবল স্রোতে ফেরি চলাচল ব্যাহত পাটুরিয়ায় আটকে আছে কয়েকশ’ যানবাহন

‘আমার নামে অশ্লীলতার বদনাম আনা হয়েছিল’

ফিলিস্তিনে ইসরাইলী দখলদারিত্বের নিন্দা ঢাকার

বাংলাদেশে প্রতি ৬ জনে অপুষ্টিতে ভুগছে একজন