এক মাসেও শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবনের দ্বার খোলেনি

অনলাইন

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার, ১১:৩৯
পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতী প্রাঙ্গনে বাংলাদেশ ভবনের দ্বার সকলের জন্য কবে খুলে দেওয়া হবে তা এখনও অনিশ্চিত। গত ২৫ মে বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীদ্বয় এই ভবনের উদ্বোধন করেছেন। বাংলাদেশের অর্থায়নে নির্মিত এই ভবনটির রক্ষাণাবেক্ষণের দায়িত্ব ওইদিনই তুলে দেয়া হয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের হাতে। কিন্তু এক মাস পূর্ণ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ ভবন কবে খুলে দেয়া হবে সে ব্যাপারে কেউই নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারছেন না। তালাবদ্ধ ভবনের  সামনে থাকা নিরাপত্তা রক্ষীরা জানিয়েছেন, প্রতিদিনই বহু মানুষ এসে ঘুরে যাচ্ছেন। বিশেষ করে বাংলাদেশিরা শান্তিনিকেতনে গিয়ে ভবনের দ্বার খোলা না পেয়ে হতাশই হচ্ছেন।
শান্তিনেকেতন ঘুরতে আসা যশোরের মাসুদুল ইসলাম বলেছেন, অনেক আশা নিয়ে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের নিজস্ব ভবন দেখতে এসেছিলাম। কিন্তু খোলা না পেযে ফিরে এসেছি। বিশ্বভারতীতে চীনা ভবন ও নিপ্পন ভবনের পর তৃতীয় বিদেশি ভবন হিসেবে তৈরি করা হয়েছে বাংলাদেশ ভবন। এখানে গবেষকরা যেমন বাংলাদেশ সম্পর্কিত গবেষণার সুযোগ পাবেন তেমনি শিক্ষার্থীরাও বাংলাদেশের ইতিহাস , মুক্তিযুদ্ধ ও সংস্কৃৃতির নানা দিক জানতে পারবেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভবনের উদ্বোধনে বলেছেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতনে এটি ছোট এক টুকরো বাংলাদেশ, যেখান থেকে বাংলাদেশের চেতনা প্রতিপালিত হবে। এই ভবনে রয়েছে একটি মিউজিয়াম ও একটি লাইব্রেরি। রয়েছে একটি আন্তর্জাতিক মানের অডিটোরিয়ম। বিশ্বভারতীর তরফে জানানো হয়েছে, ভবনের দায়িত্ব তারা নিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু এখনও অনেক বিষয় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তাই ভবনটি কবে খোলা সম্ভব হবে তা এখনও নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। বিশ্বভারতীতে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরাও জানিয়েছেন, দ্রুত বাংলাদেশ ভবন খুলে দেয়া হোক। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই এই ভবন রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বিশ্বভারতী ১০ কোটি রুপি চেয়েছে। বাংলাদেশ সরকার তা দিতে সম্মতও হয়েছে। তবে ভবনের কর্মী নিয়োগ থেকে গ্রন্থাগার বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারের নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত করা হবে কিনা তার মীমাংসা হয় নি বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘নাট্য নির্মাতারা এখন ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন’

কোনো দেশের সঙ্গে মিলছে না বাংলাদেশের কোটা পদ্ধতি

সাত বছরে সর্বনিম্ন ফল

অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেখতে চায় ইইউ

নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা

রাশিয়ায় বাংলাদেশি তরুণদের আর্তনাদ

সিলেটে উৎসবমুখর পরিবেশ, আছে শঙ্কাও

লিটনের পক্ষে খুলনার মেয়র বুলবুলের পক্ষে গয়েশ্বর

বরিশালে আত্মবিশ্বাসী আওয়ামী লীগ, কৌশলী বিএনপি

কোটা আন্দোলন নিয়ে দূতাবাসগুলোর বিবৃতিতে অসন্তোষ

অছাত্রদের হাতেই যাচ্ছে ছাত্রদলের নেতৃত্ব

নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সক্ষম

গাজীপুরে স্ত্রী-কন্যাকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে আরো দুইদিন

রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভায় জনস্রোত

আরিফকে সমর্থন জানিয়ে সরে দাঁড়ালেন সেলিম