কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলছে না

শেষের পাতা

| ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:০৩
বিশ্বকাপে ফেভারিট ও আন্ডারডগ কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলছে না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ও গোলরক্ষক আমিনুল হক। তিনি বলেন, গ্রুপ পর্বে প্রতিটি দলই দুটি করে ম্যাচ  
খেলে ফেলেছে। প্রতিটি ম্যাচই হচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বিতামুখর। বড় দল বা ফেভারিটদের ছেড়ে কথা বলছে না নবীন ও আন্ডারডগ দলগুলো। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানি জয়ে ফিরলেও স্কোরিংয়ে প্রত্যাশিত উন্নতি ঘটাতে পারেনি বলে মনে করেন আমিনুল হক। তিনি বলেন, সুইডেনের সঙ্গে দ্বিতীয় ম্যাচের শুরু থেকেই জার্মানি ভালো খেলেছে। কিন্তু আক্রমণভাগের খেলোয়াড়দের ফিনিশিংয়ে দুর্বলতার কারণে স্কোরিংয়ে প্রত্যাশিত উন্নতি ঘটাতে পারেনি। অন্যদিকে সুইডেন ডিফেন্স ঠিক রেখে কাউন্টার অ্যাটাক খেলেছে।
ফলও পেয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তারা ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছে। সুইডেন এ ম্যাচে একটি নিশ্চিত পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। পেনাল্টিটা পেলে ফলাফল অন্যরকম হতে পারতো। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচ হারার পর দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের ধারায় ফিরে কিছুটা হলেও চাপমুক্ত হয়েছে জার্মানি। গ্রুপের শেষ ম্যাচে নিশ্চয়ই তারা সে চাপমুক্ত খেলার প্রদর্শনী দেখাতে পারবে।  
আজকের ম্যাচ নিয়ে পেডিকশন করতে গিয়ে জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক এ অধিনায়ক বলেন, রাশিয়া-উরুগুয়ের ম্যাচটি হবে ইতিবাচক ও গতিশীল ফুটবলের এক প্রদর্শনী। দুই দলই ইতিমধ্যে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে। ফলে ম্যাচটি তাদের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াই মাত্র। উরুগুয়ে টেকনিক্যালি এগিয়ে থাকলেও রাশিয়া এগিয়ে আছে পরিচিত কন্ডিশন ও দর্শকদের সমর্থনে। ফলে ম্যাচটির ফলাফল হতে পারে ফিফটি-ফিফটি। অন্যদিকে মিশর ও সৌদি দুটি দলেরই ইতিমধ্যে প্রথমপর্ব থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। ম্যাচটি তাই তাদের কাছে মর্যাদার লড়াই। একটি জয় নিয়ে বিশ্বকাপের আসর থেকে ফিরতে চেষ্টা করবে দুই দলই। দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ হচ্ছে পর্তুগাল-ইরানের ম্যাচটি। কারণ এ ম্যাচের ফলাফলের ওপর নির্ভর করবে কারা দ্বিতীয় রাউন্ডে যাবে, কারা যাবে না। টেকনিক্যালি পর্তুগাল এগিয়ে এবং তাদের রয়েছে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর মতো গোলমেশিন। তারা এ ম্যাচে জয় পেলে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাবে। অন্যদিকে ডিফেন্সিভ অবস্থানে জমাট থেকে কাউন্টার অ্যাটাক খেলবে ইরান। ইরানের কোচ নিশ্চয় তার দলের খেলোয়াড়দের শিখিয়ে দেবেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে আটকানোর বিশেষ কৌশল। কারণ, কোনো রকম একটি পয়েন্ট অর্জন করতে পারলে তাদের সামনেও থাকবে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাবার সুযোগ। আমার মনে হয়, দুই দলের সামনেই রয়েছে সমান সুযোগ। দিনের অন্য ম্যাচটিতে মুখোমুখি হবে স্পেন-মরক্কো। প্রথম ম্যাচে ড্র করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ইরানের সঙ্গে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে স্পেন। মরক্কো একটি ব্যালেন্সড দল। তারা চাইবে বিশ্বকাপ থেকে অন্তত একটি পয়েন্ট নিয়ে দেশে ফিরতে। ফলে এ ম্যাচে জয় পেতে স্পেনকে দারুণ বেগ পেতে হবে।
ইংল্যান্ড সমর্থকরা বড় কিছু অর্জনের স্বপ্ন দেখতে পারে বলে মনে করেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এ গোলরক্ষক। তিনি বলেন, বিগত কয়েকটি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের প্রথম রাউন্ড পাড়ি দেয়াই ছিল একটি কঠিন কাজ। কিন্তু এবার অন্যরকম এক ইংল্যান্ডকে দেখছে বিশ্ব। এ দলটিতে রয়েছেন হ্যারি কেনের মতো দুর্দান্ত এক স্কোরার। চলতি বিশ্বকাপে একটি হ্যাট্রিকসহ ৫ গোল করে ইতিমধ্যে পরিণত হয়েছে শীর্ষ গোলদাতায়। এরকম নিয়মিত গোল পেলে পরের ম্যাচেও ভালো খেলতে খেলোয়াড়রা উজ্জীবিত হয়। প্রথম থেকেই পজেটিভ ফুটবল খেলা ইংল্যান্ড নিজেদের দুই ম্যাচেই দারুণ দুই বিজয় পেয়েছে। পানামাকে তো রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে তারা। অন্যদিকে জাপান-সেনেগালের মধ্যকার ম্যাচটিকে এশিয়ার এগিয়ে যাওয়ার ম্যাচ হিসেবে দেখছেন তিনি। আমিনুল বলেন, জাপান পুরো এশিয়াকে আনন্দে ভাসাবে- এমন প্রত্যাশা করাই যায়।
অনুলিখন: কাফি কামাল



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কুষ্টিয়া-১ আসনে বিএনপি দলীয় প্রার্থী রেজা আহমেদ বাচ্চু কারাগারে

সিইসির বক্তব্য সঠিক : কাদের

সাহস থাকলে আমাকে গ্রেপ্তার করুন: ড. কামাল

ঢাকা-১৫ আসনে আওয়ামী লীগ অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় ধানের শীষ প্রার্থীর নিন্দা

১৪ বছর পর আবার স্বামীকে বিয়ে করলেন নাদিয়া হোসেন

ভোটের দিনে ইন্টারনেটের গতি সীমিত রাখার পরিকল্পনা ইসির

মেহেরপুরে বিএনপির নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর

হিরো আলম পর্যন্ত ইসিকে হাইকোর্ট দেখায় : ইসি সচিব

লিঙ্গগত ফারাক বিশ্বে সবচেয়ে কম আইসল্যান্ডে, দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

গাংনীতে বিএনপি-জামায়াতের ১৯ নেতাকর্মী আটক

হাসপাতালে ভর্তি লতিফ সিদ্দিকী

৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি

সেনাবাহিনীর সঙ্গে যোগসাজশ: মিয়ানমারে শতাধিক একাউন্ট মুছে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

আওয়ামী লীগ ও নির্বাচন কমিশন ভুয়া

জনগণের আস্থার জায়গা যেন ব্যাহত না হয় : সিইসি

হঠাৎ প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন মনমোহন সিং!