হোঁচট খেলেন মিট রমনি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার
আগামী নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের মধ্যবর্তী নির্বাচন। সে জন্য এরই মধ্যে প্রার্থীদের তৎপরতা শুরু হয়ে গেছে। তবে প্রথমদিকেই বড় একটি ধাক্কা খেয়েছেন রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী মিট রমনি। তিনি ২০১২ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফাইট দিয়েছিলেন বারাক ওবামার বিরুদ্ধে। অথচ এবার সিনেট নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন লাভে ব্যর্থ হলেন। তবে সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায় নি। এ জন্য তাকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে ১১ জন দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে। জুনে এ বিষয়ে সেখানে প্রাইমারি নির্বাচন হবে।
সেই নির্বাচনে বিজয়ী হলে মিট রমনি ইউটাহ থেকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাবেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়, ইউটাহতে বর্তমান ক্ষমতায় আছেন সিনেটর ওারিন হ্যাচ। তিনি অবসরে যাচ্ছেন। ফলে তার আসনটি ফাঁকা হচ্ছে। সেই আসনে নির্বাচন হবে। ওই নির্বাচনে ইউটাহ রিপাবলিকান দলের কনভেনশন হয় শনিবার। সেখানে ভোট হয়। ভোট দেন ডেলিগেটরা। যদি ডেলিগেটদের কমপক্ষে ৬০ ভাগের অনুমোদন বা ভোট পেতেন মিট রমনি তাহলে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ওই আসনে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী মনোনীত হতেন। কিন্তু তিনি তা পান নি। তিনি পেয়েছেন শতকরা ৪৯.১২ ভাগ ভোট। ফলে তিনি চূড়ান্ত মনোনয়ন নিশ্চিত করতে পারেন নি। এ কারণে, জুনে অনুষ্ঠেয় প্রাইমারি নির্বাচনে তাকে মুখোমুখি হতে হবে আরো ১১ জন প্রার্থীর। সেই নির্বাচনে তিনি নির্বাচিত হলে তবেই হবেন ইউটাহতে রিপাবলিকান দলের সিনেট প্রার্থী। তিনি নিজে একজন শক্তিশালী প্রার্থী। কারণ, তিনি এর আগে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করেছেন। তার প্রতি সমর্থন রয়েছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। তাকে ফেব্রুয়ারিতে সমর্থন বা অনুমোদন দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ওই সময় এক টুইটে ট্রাম্প বলেছিলেন, রমনি হবেন একজন মহান সিনেটর। তিনি হবেন ওরিন হ্যাচের যোগ্য উত্তরসুরি। তার প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন ও অনুমোদন আছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘বুলবুলের চলে যাওয়াটা মেনে নেয়া কষ্টকর’

বাংলাদেশ থেকে যাওয়া প্রতিজন হিন্দুকে নাগরিকত্ব দেবে ভারত- অমিত শাহ

মুসলিমদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে নিউ ইয়র্কে গ্রেপ্তার ৪

গাইবান্ধায় বাসচাপায় নিহত ২

অস্ত্রের মুখে কিশোরীকে ধর্ষণ, পৌর কাউন্সিলর গ্রেপ্তার

জাতীয় জুটমিলে অগ্নিকান্ড: তদন্ত কমিটি গঠন

লক্ষ্মীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৬ জনসহ নিহত ৭

অস্ত্র প্রতিযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীন

যৌন দাসত্ব থেকে দুই কোরিয়ান নারীকে উদ্ধারের কাহিনী

মসজিদ-উল নববীর ইমাম কারাগারে ‘মারা গেছেন’

ওরা কি মানুষ?

জনগণের আস্থার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে হবে

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে ভোট ২৮শে ফেব্রুয়ারি

এমন মৃত্যু আর কত?

এক কিংবদন্তির প্রস্থান

ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে বিএনপির ১০ কমিটি