সিদ্ধিরগঞ্জে কলেজছাত্র খুন

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ১৪ মার্চ ২০১৮, বুধবার
সিদ্ধিরগঞ্জে এক কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। নিহতের নাম ইফতিখার মুসফিক জয় (১৮)। সে রাজধানীর শনির আখড়ায় দনিয়া কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল। এবং পুলিশের সোর্স হিসেবেও সে কাজ করতো। জয় সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝিলস্থ ব্যবসায়ী আকরাম হোসেনের ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে সিদ্ধিরগঞ্জের চিটাগাং রোড এলাকায়।
এ ঘটনায় পুলিশ আওলাদ হোসেন নামে এক যুবককে আটক করেছে। বিকালে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
নারায়ণগঞ্জ খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসক তাহমিনা নাজনীন জানান, ভোরের দিকে তিনজন যুবক ছেলেটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। নিহতের সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে এবং পায়ে জখমের চিহ্ন রয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের চিটাগাং এলাকায় মুন্নার মাদক স্পটে রাতের কোন এক সময় জয়কে পিটিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। জয় থানার উপ পরিদর্শক (এস আই) রফিকের সোর্স হিসেবে কাজ করতো। তবে এস আই রফিক জানান শুধু তার সঙ্গে নয় সে অনেকের সোর্স হিসেবে কাজ করতো। তাছাড়া জয় ডিবির সোর্স ইলিয়াছের সঙ্গে চলাচল করতো।
নিহতের বাবা আকরাম হোসেন জানান, সোমবার রাত ১০টার দিকে ফোন পেয়ে জয় বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। সকালে তার মৃত্যুর সংবাদ পাই। কিন্তু কারা এবং কেন তাকে হত্যা করেছে আমি কিছুই জানতে পারিনি। তিনি আরো জানান, আমি যখন কারাগারে ছিলাম। তখন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এস আই রফিকুল ইসলাম ও এসআই সামছুল আলমের সঙ্গে জয়ের পরিচয় গড়ে উঠে।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে মাদক ব্যবসায়ী মুন্না, শাহ আলমের সঙ্গে কোন কিছু নিয়ে দ্বন্দ্বে খুন হয় জয়।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার জানান, সকালে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যে তিনজন লাশ নিয়ে এসেছিল তাদের মধ্য আওলাদ নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাজপেয়ী প্রয়াত

কোটা আন্দোলনের নেত্রী লুমা রিমান্ডে

তাদের উদ্দেশ্য কি?

ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি

সাইবার হামলার আশঙ্কায় সব ব্যাংকে সতর্কতা জারি

ঢাকার নিন্দা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন

আমীর খসরুকে দুদকে তলব

রোহিঙ্গা প্রশ্নে চীন ও রাশিয়ার অবস্থান পাল্টায়নি এখনো

মহাসড়কে যানজট ঈদযাত্রার আগেই ভোগান্তি

যুবলীগ নেতার গ্রেপ্তার দাবিতে সড়কে এমপি

স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে ঈদ করা হলো না প্রবাসী নাছিরের

অতিরিক্ত গচ্চা ১১১ কোটি টাকা

পেট্রোবাংলার ৭ কর্মকর্তাকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন আজ

লুমা রিমান্ডে, ১২ ছাত্রের জামিন নামঞ্জুর