শাওনকে রেখে চলে গেলেন শশী

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৪ মার্চ ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৫২
‘এবং যাত্রা হলো শুরু’- উড়োজাহাজটি আকাশে ডানা মেলতেই নিজের ফেসবুক ওয়ালে এমন একটি পোস্ট দিয়েছিলেন তাহিরা তানভিন শশী। পাশের সিটেই বসেছিলেন স্বামী ডা. রেজওয়ানুল হক শাওন। নিজেদের সপ্তম বিবাহবার্ষিকী উদ্‌?যাপন করতে কাঠমান্ডু যাচ্ছিলেন তারা। কিন্তু আনন্দময় এ যাত্রার শেষটা বড় বিষাদময়। যাত্রা শেষে উচ্ছল শশী আর নেই। সোমবার দুপুরে নেপালের কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হয় ইউএস বাংলার বিএস-২১১ ফ্লাইটটি।
ওই দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন শশী। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন শাওন। তবে প্রিয়তমা স্ত্রীর এই চিরবিদায়ের খবর এখনো জানেন না শাওন।
চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, শাওনের শরীরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত। কাঠমান্ডুর ওম হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। শশীর মরদেহ রয়েছে কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজ টিচিং হাসপাতালের মর্গে। শাওনের চাচাতো ভাই মুসাব্বির বিন মাজহার বলেন, দুর্ঘটনার খবর শোনার সঙ্গে সঙ্গে শশী ভাবি ও শাওন ভাইয়ের বাবা বিমানবন্দরে যান নেপালে যাওয়ার জন্য। তখন নেপালের বিমানবন্দরে বিমান চলাচলে ঝামেলা থাকায় তারা যেতে পারছিলেন না। এক সময় ওখানেই খবর পান, শশী ভাবি মারা গেছেন। এরপর ওই কষ্টের কথা আর বলা সম্ভব নয়। মুসাব্বির বিন মাজহার বলেন, আজ (গতকাল) ইউএস বাংলার বিশেষ ফ্লাইটে নেপাল গেছেন শাওন ভাইয়ের বাবা ও আমার আরেক চাচা। শাওন ভাইয়ের সঙ্গে সোমবার রাতে আমাদের কথা হয়। তিনি এখনো ঘোরের মধ্যে। বারবার শশী ভাবির কথা জানতে চাইছেন। আমরা তাকে কিছু জানাইনি।
শাওন এখন রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার। এ তথ্য জানিয়েছেন, মেডিকেল কলেজটির আরেক চিকিৎসক ডা. জামাল উদ্দিন মিন্টু। তিনি বলেন, শাওন বর্তমানে এফসিপিএস উচ্চতর ডিগ্রির জন্য প্রশিক্ষণরত। এই চিকিৎসক আরো জানান, বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর পরই তারা শাওনের ব্যাপারে খোঁজ নেন। তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। জানতে পারেন, শাওন বেঁচে গেলেও নিহত হয়েছেন তার স্ত্রী শশী। শাওনের চাচাতো ভাই মুসাব্বির বিন মাজহার বলেন, রংপুর মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন নেপালি ছাত্র রাহুলের মাধ্যমে শাওনের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় বলে জানান মুসাব্বির বিন মাজহার।
মানিকগঞ্জ শহরের লঞ্চঘাট এলাকার ডা. রেজা জামানের একমাত্র মেয়ে শশী। শশী ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিমিনোলজি বিভাগে মাস্টার্স করছিলেন। শশীর বাবা-মা থাকেন রাজধানীর মোহাম্মদপুরে। মুসাব্বির বিন মাজহার বলেন, ‘একমাত্র সন্তান হারিয়ে বাবা-মায়ের কী যে অবস্থা, তা আর বলার মতো নয়। আমাদের সব আত্মীয় এখন ওই বাসায়।’ শাওনের বাবা মোজাম্মেল হকও চিকিৎসক। তিনি কিছুদিন আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকের পদ থেকে অবসর নিয়েছেন। শাওন ও শশী দু’জনেরই গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার গোপালপুরে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

munni

২০১৮-০৩-১৬ ০৫:০৬:২৭

আমি আল্লাহতালার কাছে দোয়াকরি শশি আপুকে আল্লাহতালা জান্নাত বাসি করুম আমিন

আপনার মতামত দিন

পুলিশি বাধায় পণ্ড বিএনপির বিক্ষোভ

প্লট পাচ্ছেন ৯৯ এমপি

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে তারেক রহমানের লিগ্যাল নোটিশ

তারেক বৃটিশ সরকারের কাছে পাসপোর্ট সমর্পণ করেছেন- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

ওদের এখনো দুর্বিষহ জীবন

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

বিচার কত দূর?

সেনাবাহিনী ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়

হামলা, সংঘর্ষের পর থমথমে বেরাইদ

চালকসহ তিনজন আটক

চ্যালেঞ্জ নিয়েই সিলেটের রাজপথে সার্জেন্ট হৈমন্তী

বড় দু’দলেই কোন্দল

বাসে ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা : চালকসহ তিনজন আটক

বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করলেন আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী

মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আটক

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে আইনি নোটিশ তারেকের